বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ৫ আষাঢ় ১৪৩১
 

নাফ নদী থেকে সরিয়ে নিয়েছে মিয়ানমারের যুদ্ধজাহাজ    জাপানে ভয়ঙ্কর ব্যাকটেরিয়ার থাবা, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু    দ্বিতীয় সর্বোচ্চ টোল আদায়ের রেকর্ড পদ্মা সেতুতে     গাজীপুরে শ্রমিক অসন্তোষ, বেতনের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ    সেন্টমার্টিন আক্রান্ত হলে ছেড়ে দেব না: কাদের    সেন্টমার্টিন নিয়ে সরকারের নীরবতা দাসসুলভ আচরণ: ফখরুল    বৃক্ষরোপণের আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী   
কত দিন ব্যবহার না করলে সিমের মালিকানা চলে যাবে জানাল রবি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৬ মে, ২০২৪, ১১:৩৮ অপরাহ্ন


অনেকেই দীর্ঘদিন সিম ব্যবহার করেন না। অর্থাৎ সিমে রিচার্জ করা, কল আদান-প্রদান করা থেকে বিরত থাকেন। একটা সময় পর দেখা যায় ওই সিম আর সচল নেই। সবচেয়ে খারাপ লাগে তখনই, যখন দেখা যায় নিজের সিমটি অন্য কেউ ব্যবহার করছে এটা জানলে। অনেকেরই ধারণা নেই কত দিন সিম ব্যবহার না করলে মালিকানা চলে যায়। 

ফোনের মালিকানা হারানো বিষয়ে বেসরকারি মোবাইল অপারেটর গ্রাহকদের সতর্ক করল। ১৫ মে প্রকাশিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, আপনার যদি কোনো রবি সিম থেকে থাকে যা ১৫ মাসের বেশি সময় ধরে অব্যবহৃত, তাহলে ১৩ আগস্ট ২০২৪ তাারিখের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে পুনরায় সিমটি চালু করে দিন। অন্যথায় বিটিআরসির নিয়ম অনুযায়ী উক্ত সময়ের পর আর সিমটির মালিকানা দাবি করা যাবে না।

অধিকাংশ মানুষই এখন একাধিক সিম ব্যবহার করে থাকেন। সিমের সহজলভ্যতা এবং একাধিক সিম ব্যবহারের সুবিধার কারণে অনেকেই কাজটি করেন। তবে অনেক সময় বিভিন্ন কারণে প্রয়োজনীয় সিম ছাড়া অন্য সিমগুলো ব্যবহার করা হয়ে ওঠে না। সেক্ষেত্রে সিমগুলো বন্ধ হয়ে পড়ে থাকে দীর্ঘ সময়। এক্ষেত্রে ওই সিমটি হঠাৎ আপনার প্রয়োজন হতে পারে। কিন্তু তখন দেখলেন সিমটির মালিকানা পরিবর্তন হয়ে গেছে। অর্থাৎ সিমটি অন্য কেউ কিনে নিয়েছেন। এক্ষেত্রে সিম কোম্পানির কোনো দায় থাকে না।

মূলত বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নিয়ম অনুযায়ী সিম কোম্পানি কাজটি করে থাকে। নিয়ম অনুযায়ী, একটি নির্দিষ্ট সময় সিম ব্যবহার না করা হলে মালিকানা চলে যায়। আর তখন সিম কোম্পানি বৈধভাবে অন্য গ্রাহকের কাছে নম্বরটি বিক্রি করে দেয়। 

বিটিআরসির বন্ধ সিমের মালিকানা সংক্রান্ত একটি নিয়ম রয়েছে। নিয়ম অনুসারে, টানা ১৫ মাস বা ৪৫০ দিন সিম বন্ধ থাকলে সিমের মালিকানা চলে যায়। মোবাইল অপারেটর রবি তাদের গ্রাহকদের এই তথ্যটি ফের মনে করিয়ে দিল।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. আক্তার হোসেন রিন্টু
বার্তা ও বাণিজ্যিক বিভাগ : প্রকাশক কর্তৃক ৮২, শহীদ সাংবাদিক সেলিনা পারভীন সড়ক (৩য় তলা) ওয়্যারলেস মোড়, বড় মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।
বার্তা বিভাগ : +8802-58316172. বাণিজ্যিক বিভাগ : +8801868-173008, E-mail: dailyjobabdihi@gmail.com
কপিরাইট © দৈনিক জবাবদিহি সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft