বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ১১ বৈশাখ ১৪৩১
 

কাতার-বাংলাদেশের মধ্যে ১০ চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই    ৩২ টাকা কেজিতে ধান, ৪৫ টাকায় চাল কিনবে সরকার    মালিবাগে ট্রেনের ধাক্কায় নিরাপত্তাকর্মী নিহত    জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম থেকে ব্যারিস্টার খোকনকে অব্যাহতি    ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের নতুন নিষেধাজ্ঞা    পানির নিচে দুবাই বিমানবন্দর, ব্যাপক বিশৃঙ্খলা    ইরানের ওপর চাপ বাড়াচ্ছে পশ্চিমা দেশগুলো   
তীব্র গরমে কেমন থাকবে বিদ্যুৎ সরবরাহ?
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৪, ৩:৪৬ অপরাহ্ন

এপ্রিল শুরু হতে না হতেই দেশের বিভিন্ন জেলায় দেখা দিয়েছে তীব্র লোডশেডিং। পিজিসিবির হিসাবে, গতকাল বুধবার বিদ্যুতের চাহিদা ও সরবরাহের ব্যবধান ছিল প্রায় ২ হাজার মেগাওয়াট। 

পাওয়ার সেল বলছে, এলএনজিবাহী দ্বিতীয় জাহাজ থেকে এখনো গ্যাসের সরবরাহ শুরু না হওয়ায় দেখা দিচ্ছে এমন সঙ্কট।  

দিনপঞ্জির পাতায় এপ্রিল শুরু হতেই সূর্যের তাপে অতিষ্ঠ হতে শুরু করেছে জনজীবন। তবে এই তাপ আরও বেশি পোড়াচ্ছে ঢাকার বাইরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিং। অর্থাৎ যতটা চাহিদা রয়েছে ততটা সরবরাহ করতে পারছে না বিদ্যুৎ বিভাগ। ফলে ভোগান্তি বেড়েছে রমজানের শেষ দিকে এসে।

পিজিসিবি'র তথ্য অনুযায়ী, পয়লা এপ্রিল রাত ১২টায় বিদ্যুতের চাহিদা ছিল পৌনে ১৪ হাজার মেগাওয়াট। বিপরীতে সরবরাহ করা হয় সাড়ে ১২ হাজারের নিচে। ফলে ওই সময় লোডশেডিং করতে হয় ১ হাজার ৩০০ মেগাওয়াটের বেশি। এর ঠিক ২৪ ঘণ্টা পর ২ এপ্রিল রাত ১২টায় সেই লোডশেডিং আরও ৫০০ মেগাওয়াট বেড়ে দাঁড়ায় ১ হাজার ৮২৬ মেগাওয়াটে।

পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আর দু’একটা দিন হয়তো কষ্টটা থাকবে। এরপর সব স্বাভাবিক হয়ে যাবে। এই সঙ্কট কাটানো যাবে।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ড. ইজাজ হোসেন বলেন, চাহিদা ১২ হাজার মেগাওয়াটের ওপরে চলে গেলেই বিদ্যুৎ ডেভেলপমেন্ট বোর্ডের নড়বড়ে অবস্থা হয়ে যায়। আমার মতে, ১৩ হাজারের ওপরে গেলে ২ থেকে ৩ হাজার মেগাওয়াট লোডশেডিং হতে পারে।

সাধারণত এপ্রিল থেকেই বাড়তে শুরু করে বিদ্যুতের চাহিদা। এ ছাড়া রমজান, সেচ মৌসুম এবং গরমের কারণে এবার তা বেড়েছে কিছুটা বেশি। তবে সেই অনুযায়ী পরিকল্পনাও আগে থেকেই সাজিয়ে রেখেছিল বিদ্যুৎ বিভাগ। ফলে এই সময়টাতে উৎপাদনের পরিকল্পনা ছিল সাড়ে ১৭ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। কিন্তু জ্বালানি সঙ্কটসহ নানা কারণে সেটার আশপাশেও যেতে পারছে না সরকার।

বর্তমানে বিদ্যুতের উৎপাদন ক্ষমতা ২৬ হাজার মেগাওয়াটের ওপরে। যদিও উৎপাদন হচ্ছে অর্ধেকেরও নিচে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. আক্তার হোসেন রিন্টু
বার্তা ও বাণিজ্যিক বিভাগ : প্রকাশক কর্তৃক ৮২, শহীদ সাংবাদিক সেলিনা পারভীন সড়ক (৩য় তলা) ওয়্যারলেস মোড়, বড় মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।
বার্তা বিভাগ : +8802-58316172. বাণিজ্যিক বিভাগ : +8801868-173008, E-mail: dailyjobabdihi@gmail.com
কপিরাইট © দৈনিক জবাবদিহি সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft