বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
 

ভারতের আরেক প্রাচীন মসজিদে পূজা    পোস্তগোলা সেতু দিয়ে বাস চলবে না ৫ দিন    শিলাবৃষ্টি-তাপমাত্রা নিয়ে আবহাওয়া অফিসের নতুন তথ্য    তারা আমাকে জেলে পাঠাতে পারেন: ড. ইউনূস    গত বছর বিশ্বব্যাপী হাম ৭৯ শতাংশ বেড়েছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা    ১৯৩ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা অনুমোদন ইইউ’র    হুথিদের হামলায় সামরিক ড্রোন ধ্বংস, স্বীকার করল যুক্তরাষ্ট্র   
টক দইয়ের সঙ্গে ভুলেও যেসব খাবার খাওয়া যাবে না
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১:০১ অপরাহ্ন

প্রতিদিনই টক দই খেতে ভালোবাসেন অনেকেই। রান্নাতেও ব্যবহার করেন কেউ কেউ। আবার কেউ দুধের বিকল্প হিসেবেও বেছে নেন টক দই। পুষ্টিবিদরাও রোজকার পাতে টকদই রাখার পরামর্শ দেন। চিকিৎসকরাও সুগারসহ নানা রোগে পথ্য হিসেবে দই খাওয়ার পরামর্শ দেন।

টকদইয়ের মধ্যে রয়েছে প্রো-বায়োটিক উপাদান যা অন্ত্রের বন্ধু ব্যাকটেরিয়া হিসেবে বলা হয়। আর এই উপকারী ব্যাকটেরিয়া শরীরের মধ্যে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে পরিপাকতন্ত্রকে আরও শক্তিশালী করে তোলে। ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। এ ছাড়া প্রোটিন, ফ্যাট, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন এ, বি ৬, বি ১২-সহ নানা পুষ্টিকর উপাদানে ভরপুর টক দই। তবে টক দই খাওয়ার সময় এমন কিছু খাবার আছে যা না রাখাই ভালো বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

আয়ুর্বেদ মতেও টক দইয়ের সঙ্গে এমন কিছু খাওয়া উচিত নয়, যা আমাদের শরীরে গিয়ে উপকারের বদলে অপকার করে। এমন চারটি খাবারের তালিকা, যা টক দইয়ের সঙ্গে খাওয়া উচিত নয় বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। মেদ ও গ্ল্যামার বাড়াতে রোজ পাতে টক দই তো খাচ্ছেন, তাহলে এই চারটি খাবার কখনোই দইয়ের সঙ্গে খাবেন না, এতে হিতে বিপরীত হতে পারে! দেখে নিন সেগুলো কী কী-

​পেঁয়াজের সঙ্গে একেবারেই নয়: বিরিয়ানির সঙ্গে রায়তা খেতে পছন্দ করেন অনেকেই। তবে আয়ুর্বেদ অনুসারে, এ অভ্যাসটি এখনই পরিবর্তন করুন। আয়ুর্বেদে বলছে, দই ও পেঁয়াজ একসঙ্গে যদি খাওয়া হয় এতে অ্যাসিডিটির সমস্যা হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে টকদই এমনিতেই ঠান্ডা আর পেঁয়াজ শরীরে তাপ উৎপাদন করে। তাই এ দুই খাবার একসঙ্গে খেলে বিপরীত প্রতিক্রিয়া শুরু হয়ে যায়। ঠান্ডা এবং গরমের মিশ্রণে ত্বকেরও সমস্যা হতে পারে তাই এই খাবার না খাওয়াই ভালো।

​দুধের সঙ্গে টক দই কখনই নয়: দুধ ও দই একই জায়গা থেকে আসে। এ দুই উপাদানই প্রাণিজ দুই প্রোটিন এইভাবে একসঙ্গে খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। এটি ডায়রিয়া, অ্যাসিডিটি, ফোলাভাব এবং গ্যাসের কারণ হতে পারে।

​​মাছের সঙ্গে দই খাবেন না: বিশেষজ্ঞদের মতে, দইয়ের সঙ্গে মাছ কখনও খেতে নেই। কারণ এ দুটি খাবার একসঙ্গে খেলে শরীরে কু-প্রভাব পড়তে পারে। ফলে আমাদের শরীরে নানা সমস্যা দেখা যায়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, মাছ ও দই দুটোতেই প্রোটিন রয়েছে। তাই একসঙ্গে না খাওয়াই ভালো। যদিও অনেকেই আছেন একসঙ্গে দই ও মাছ খেয়ে নেন। তবে তা একেবারে ঠিক নয়। এতে পেটে নানা সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

​ভাজাপোড়া খাবারের সঙ্গে দই খাবেন না: অনেকেই আছেন আলুর পরোটার সঙ্গে টকদই খান, বা স্পাইসি খাবারের সঙ্গে টক দই খেয়ে নেন। আয়ুর্বেদ বলছে, এভাবে ভাজাপোড়া খাবারের সঙ্গে টক দই খাওয়া কখনও উচিত নয়। এসব খাবারের সঙ্গে টক দই খেলে হজমে সমস্যা দেখা দিতে পারে। যা আমাদের হজমশক্তিকে আরও কমিয়ে দিতে পারে। আপনার পেট ফোলার সমস্যা হতে পারে এবং ক্লান্তি অনুভব করতে পারেন। তাই ভাজাপোড়ার সঙ্গে সঙ্গে টক দই না খাওয়াই ভালো।


-জ/অ

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো. আক্তার হোসেন রিন্টু
বার্তা ও বাণিজ্যিক বিভাগ : প্রকাশক কর্তৃক ৮২, শহীদ সাংবাদিক সেলিনা পারভীন সড়ক (৩য় তলা) ওয়্যারলেস মোড়, বড় মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।
বার্তা বিভাগ : +8802-58316172. বাণিজ্যিক বিভাগ : +8801868-173008, E-mail: dailyjobabdihi@gmail.com
কপিরাইট © দৈনিক জবাবদিহি সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft