শুক্রবার ৭ অক্টোবর ২০২২ ২২ আশ্বিন ১৪২৯
 

বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা, গ্রেফতার ৩, ৮ রিভলবার-গুলি উদ্ধার    আবরার ফাহাদের মৃত্যুবার্ষিকী পণ্ড করল ছাত্রলীগ    টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা    ওয়েটার থেকে শতকোটি টাকার মালিক মুক্তার, আইনের আওতায় আনার চেষ্টায় গোয়েন্দারা    করোনায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪৯১    ডেঙ্গুতে মৃত্যু ১, হাসপাতালে ভর্তি ২৪০    শান্তিতে নোবেল গেল বেলারুশ, ইউক্রেন ও রাশিয়ায়   
প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ঘরের নির্মাণ কাজ অসমাপ্ত রেখেই টাকা উত্তোলন
পাবনা প্রতিনিধি:
প্রকাশ: শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২, ৬:১২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট: শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২, ৮:২৪ অপরাহ্ন

পাবনার সাঁথিয়ায় মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জন্য ঘর নির্মাণ কাজ অসমাপ্ত রেখেই বরাদ্দকৃত টাকা উত্তোলন করে নেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, ২০২১-২২ অর্থবছরে উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে দরীদ্র ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ৫ টি গৃহহীন পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে ৫টি ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়। প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্দ প্রদান করা হয় ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫’শ টাকা করে। মোট বরাদ্দ দেয়া অর্থের পরিমাণ ১৩ লাখ ৫৭ হাজার ৫শ টাকা। 

এছাড়াও মালামাল পরিবহণের জন্য প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয় ৫ হাজার টাকা। এই ঘর সমূহ তৈরি করার দায়িত্ব ছিল সাঁথিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির উপর। ওই কমিটির সভাপতি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম জামাল আহমেদ। যারা ঘর বরাদ্দ পেয়েছেন, মায়া রাণী দাস পিতা-রাইচরণ দাস গ্রাম-নাগডেমড়া; গোবিন্দ চন্দ্র দাস, পিতা-কালিপদ দাস, সিপন চন্দ্র দাস, পিতা-সুবাস চন্দ্র দাস, উভয়ের বাড়ি করমজা; অমরেশ চন্দ্র দাস ও কর্মচন্দ্র দাস উভয়ের পিতা-ভাদুচন্দ্র দাস বাড়িকাশিনাথপুর। এরা ঋষি ও রাই সম্প্রদায়ের লোক।

সরেজমিনে বাড়িগুলোর কি অবস্থা তা দেখতে কয়েকজন সাংবাদিক গত শুক্রবার ও শনিবার গিয়েছিলেন নাগডেমড়া, কাশিনাথপুর এবং করমজা গ্রামে। নাগডেমড়া গ্রামের মায়া রাণী দাসের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেল, ঘরের দেওয়াল গাঁথা হয়েছে তবে প্লাস্টার হয়নি। অসমাপ্ত রয়েছে বারান্দার পিলার তৈরি, উপরের টিনের ছাউনি হয়নি। দরজা, জানালাএবং মেঝের কাজ কিছুই হয়নি। 

এ বিষয়ে মায়া রাণী বললেন, রাজমিস্ত্রি কাজ করে কিন্তু তার সঙ্গে কোন শ্রমিক থাকে না। শ্রমিকের কাজ করতে হয় মায়ারাণীর ছেলেকে। ইট-বালু, খোয়া-সিমেন্ট নৌকা ও মাথায় করে নির্মাণ স্থলে আনতে হয় আমার ছেলেকে। এর জন্য কোন পারিশ্রমিক প্রদান করা হয় নাই। একই কথা বললেন অমরেশ চন্দ্র দাস ও কর্ম চন্দ্র দাস। অমরেশ এবং কর্ম চন্দ্র শ্রমিকের কাজ করেন রাজমিস্ত্রীর সঙ্গে। এর বিনিময়ে তারা কোন পারিশ্রমিক পাননি। 

তারা আরও বললেন, নির্মাণ কাজের জন্য তারা দুই ভাই মিলে একটি পানির পাম্প মেশিন কিনেছেন। এই পাম্প মেশিনের বিদ্যুৎ বিলও তাদের পরিশোধ করতে হয়। অমরেশ ও কর্ম চন্দ্রের ঘর দুটির কাজ অসমাপ্ত পরে আছে। টিনের চালার ছাউনি লাগানো হয়েছে। বারান্দার কাজ, দরজা, জানালা মেঝের ঢালাই ও প্লাস্টারের কাজ হয়নি। করমজা গ্রামের গোবিন্দ ও সিপনের বাড়ির কাজ এখনও পুরোপুরি হয়নি।

যেনতেনভাবে মেঝের ঢালাইয়ের কাজ করা হয়েছে। দরজা-জানালার সি আই সিট খুবই নিম্নমানের। প্রকল্পটির কাজ করেন সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সদ্য বদলী হয়ে যাওয়া) এস এম জামাল আহমেদ। তিনি প্রকল্পের সমূদয় টাকা উত্তোলন করেন গত ২৭ জুন। ইউ এন’র পক্ষে এই প্রকল্পের কাজ করেন বেড়া উপজেলার সানিলা গ্রামের এম এন আসিফ ওরফে বাবু।

এ ব্যাপারে তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি ৫টি ঘর নির্মাণের সমূদয় টাকা পেয়েছি। তিনি আরও বলেন, কাজ প্রায় শেষ। যদিও সাংবাদিকরা যেয়ে কাজের অগ্রগতির পরিস্থিতি দেখেছেন। তিনি প্রতিটি ঘরের জন্য পেয়েছেন ২ লাখ ৫৯ হাজারপাঁচশ টাকা। এ ব্যাপারে পাবনা জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেনকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘জুন ফাইনালের জন্য তো অসমাপ্ত কাজের অব্যহৃত টাকা উত্তোলন করে রাখতেই হয়েছে।’ 

তবে এই টাকা কোন তহবিলে গচ্ছিত আছে তার সদুত্তোর তিনি দেননি। সাঁথিয়ার বর্তমান (সদ্য যোগদানকারী) উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুদ হোসেন অসমাপ্ত ঘর সমূহের কাজ পরিদর্শণ করেছেন। তিনি জানান, ‘আমি কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে (এম এন আসিফ) ২০ আগস্টের মধ্যে কাজ সমাপ্ত করার নির্দেশ প্রদান করেছি।’

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »







  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ
সম্পাদক ও প্রকাশক : আক্তার হোসেন রিন্টু
বার্তা ও বাণিজ্যিক বিভাগ : প্রকাশক কর্তৃক ৮২, শহীদ সাংবাদিক সেলিনা পারভীন সড়ক (৩য় তলা) ওয়্যারলেস মোড়, বড় মগবাজার, ঢাকা-১২১৭
বার্তা বিভাগ : +8802-58316172, বাণিজ্যিক বিভাগ : +8802-58316175,+8801711443328, E-mail: dailyjobabdihi@gmail.com, jobabdihionline@gmail.com
কপিরাইট © দৈনিক জবাবদিহি সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত | Developed By: i2soft