শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
৫ গোলের নাটকীয় লড়াইয়ে হেরে বার্সার বিদায় ঘানায় ভয়াবহ বিস্ফোরনে নিহত ১৭ দুই সপ্তাহের জন্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিরামপুরে মাদক মামলায় নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য গ্রেফতার দাঁড়িয়ে থাকা ট্রলিতে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত নীলফামারীতে সড়ক দূর্ঘটনায় নারী শ্রমিক নিহত পটুয়াখালীতে আনসার-ভিডিপি সদস্যদের বাই-সাইকেল বিতরন গৌরীপুরে বিধু ভূষণ দাস স্মরনে আওয়ামী লীগের শোকসভা অনুষ্ঠিত ব্যাংকের সর্বনিম্ন বেতন নির্ধারণ করে সার্কুলার জারি ইভ্যালি ইস্যুঃ হাইকোর্টে তাহসানের আগাম জামিন মানিকগঞ্জে বড়ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাইয়ের মৃত্যুদন্ডাদেশ ফেনীতে প্রতারণায় সহায়তার অভিযোগে ৩ জনের কারাদন্ড জোর করে ওষুধ খাইয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট, আদালতে স্বীকারোক্তি মেহেরপুরে সাজাপ্রাপ্ত দুই পলাতক আসামি আটক এখন থেকে রাতেও নৌযান চলবে ‘বঙ্গবন্ধু মোংলা-ঘাষিয়াখালী ক্যানেলে’ মেসিকে বাদ দিয়েই আর্জেন্টিনা দল ঘোষণা আফগানিস্তানে চাকরি হারিয়েছে পাঁচ লাখের বেশি মানুষ আইপি টিভি-ইউটিউবে সংবাদ প্রচার নীতিমালা বিরোধী: তথ্যমন্ত্রী শেরপুরে রাস্তার পাশে বীর মুক্তিযোদ্ধার লাশ! পটুয়াখালীর দুমকিতে মসজিদ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

১৮ নয়, মুসলিম মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারবেন

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০১ অপরাহ্ন
১৮ নয়, মুসলিম মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারবেন
১৮ নয়, মুসলিম মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারবেন

বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারেবেন মুসলিম মেয়েরা বলে রায় দিয়েছেন ভারতের পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট। কোর্ট বলেছে, ১৮ বছরের সাবালিকাও হতে হবে না, বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারে মুসলিম মেয়েরা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার যখন মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ বছর করার কথা ভাবছে, তখন এ রায় দিলেন দেশটির আদালত।

পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের এমন রায় নিয়ে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে আলোচনা।

সম্প্রতি পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন ১৭ বছর বয়সি এক মুসলিম তরুণী ও তার স্বামী ৩৩ বছর বয়সি এক হিন্দু যুবক।

তাদের বিয়েতে পরিবারের মত ছিল না। নিরাপত্তার অভাব বোধ করেই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন ওই দম্পতি।

ওই মামলায় হাইকোর্টের বিচারপতি হরনরেশ সিংহ গিল জানান, মুসলিম পার্সোনাল ল মেনেই মুসলিম মেয়েদের বিয়ে হয়ে থাকে। ইসলামি আইনের ১৯৫ অনুচ্ছেদেই বলা আছে— মুসলিম মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পেরোলেই নিজের পছন্দের মানুষকে বিয়ে করতে পারেন।

বিচারপতি গিলের পর্যবেক্ষণ, পরিবারের আপত্তির বিষয়টি মেনে নিলে ওই তরুণী ও যুবকের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হতো।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: