বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ধামইরহাটে নৌকা প্রার্থী ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী কমলের বিশাল কর্মী সভা গাইবান্ধায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড বাড়িতে বাবার লাশ রেখে পরীক্ষা হলে মেরাজ শিবগঞ্জে নদী ভাঙন আতঙ্কে গ্রামবাসী, পরিদর্শনে পাউবি বকশীগঞ্জে তিন করাত কল মালিককে জরিমানা নাচোল উপজেলা চেয়ারম্যান কাদেরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ মানিকগঞ্জে পুলিশ সুপারের সাথে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মতবিনিময় সভা দেড়বছর পর যাত্রা করলো বেনাপোল এক্সপ্রেস ক্যামব্রিয়ানের কোটি কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি কৃষি জমি নষ্ট করে বালু ভরাট চলমান উন্নয়নকে প্রশ্নের মুখে শিবপুরে দরিদ্র কৃষকের স্বপ্ন ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা লেডি বাইকার রিয়াকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট দশ বছরে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে: প্রধানমন্ত্রী ‘অতিশয় বৃহৎ সংগ্রামের’ জন্য প্রস্তুত হতে বললেন কিম এবার প্রতিবেশী ভারতে ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর হামলায় পালাচ্ছে হাজার হাজার বাসিন্দা আগামী তিন দিন বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে- আবহাওয়া অধিদপ্তর কমলো এলপি গ্যাসের দাম অভিবাসীর সংখ্যায় বিশ্বে বাংলাদেশ ষষ্ঠ চাঁপাইনবাবগঞ্জে তথ্য অধিকারের গুরুত্ব নিয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত

শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে ভারতকে হারাল শ্রীলঙ্কা

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০২ অপরাহ্ন
শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে ভারতকে হারাল শ্রীলঙ্কা

কলম্বোর মন্থর উইকেটে রানের খড়ায় ভুগেন দুই দলের ব্যাটসম্যানরা। মাত্র ১৩২ রানের পুঁজি পায় ভারত। তাতেই লড়াই জমল বেশ, ম্যাচ গড়ায় শেষ ওভারে। শ্বাসরুদ্ধ লড়াইয়ের শেষ ওভারে এসে ৪ উইকেট আর ২ বল হাতে রেখে ম্যাচ জিতে যায় শ্রীলঙ্কা। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা।

১৩৩ রানের টার্গেটে নেমে দলীয় ১২ রানের মাথায় আভিষ্কা ফার্নান্ডোকে হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর কুলদীপ যাদব, বরুণ চক্রবর্তী আর রাহুল চাহার- এই স্পিনত্রয়ীর দাপটে রীতিমতো ঘামতে থাকে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার হার না মানা ইনিংস ম্যাচে রোমাঞ্চ ছড়ায়।

সেট হওয়ার পর ৩৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন লঙ্কান ওপেনার মিনোদ ভানুকা। এরপর ১০৫ রান তুলতেই শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেট হারিয়ে বসে। তখন তাদের হাতে মাত্র ১৬ বল, রান দরকার ২৮। এমন পরিস্থিতিতে প্রায় হারতে বসেছিল স্বাগতিকরা। তবে এক প্রান্তে মাটি কামড়ে পড়ে ছিলেন ধনাঞ্জয় ডি সিলভা।

সতীর্থরা আসা যাওয়ার মিছিলে থাকলেও তিনি হাল ছাড়েনি। শেষ দুই ওভারে যখন প্রয়োজন ২০ রান, তখন ভুবনেশ্বর কুমারকে ছক্কায় ওড়ান চামিকা করুনারত্নে। ওই ওভার থেকে আসে ১২ রান। শেষ ৬ বলে ৮ রানের সমীকরণ মেলাতে সমস্যা হয়নি ধনাঞ্জয়ার। শেষ পর্যন্ত ৩৪ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ৪০ রানে অপরাজিত এই লঙ্কান।

এর আগে পাঁচ অভিষিক্ত দেবদত্ত পাডিক্কেল, রুতুরাজ গায়কোয়াড়, নিতিশ রানা এবং চেতন সাকারিয়াকে নিয়ে ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। অভিষেক ম্যাচেই শিখর ধাওয়ানের সঙ্গে ওপেন করতে নেমেছিলেন রুতুরাজ। শুরুটা তিনি ভালোই করেছিলেন। প্রথম পাওয়ার প্লে-তে বিনা উইকেটেই ৪৫ রান তুলে সফরকারিরা।

তবে অতি আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে ২১ রান আউট হন রুতুরাজ। তারপরও ১২ ওভার শেষে ভারতের রান ছিল ১ উইকেটে ৮১। ধাওয়ান টিকে থাকলেও টি-টোয়েন্টির ব্যাটিংটা করতে পারছিলেন না। ৫ চারে ৪২ বলে ৪০ রান করে তিনি বোল্ড হন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার বলে।

এরপর একটি করে ছক্কা-চারে ২৩ বলে ২৯ করা অভিষিক্ত দেবদূত পাডিক্কেলের স্টাম্প ভাঙেন ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। এছাড়া সঞ্জু স্যামসন (১৩ বলে ৭), নিতিশ রানাও (১২ বলে ৯) সুবিধা করতে পারেননি।
শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১৩২ রানে থামে ভারতীয় ইনিংস। এই পুঁজি নিয়েই কাঁপিয়ে দিয়েছিল স্বাগতিকদের। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না।

মূলত ম্যাচটি মঙ্গলবার হওয়ার কথা থাকলেও ক্রুনাল পান্ডিয়া কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় তা একদিন পিছিয়ে যায়। তার ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসায় ভারত দলের আটজন ক্রিকেটারকে রাখা হয় আইসোলেশনে। তাই ভারতের মূল দলের কেবল ১১ জনই ছিল অবশিষ্ট। তাদের নিয়েই দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করল সফরকারীরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ভারত: ২০ ওভারে ১৩২/৫ (রুতুরাজ ২১, ধাওয়ান ৪০, পাডিক্কেল ২৯, স্যামসন ৭, নিতিশ ৯, ভুবনেশ্বর ১৩*, সাইনি ১*; চামিরা ৪-০-২৩-১, চামিকা ১-০-৬-০, আকিলা ৪-০-২৯-২, উদানা ১-০-৭-০, হাসারাঙ্গা ৪-০-৩০-১, শানাকা ২-০-১৪-১, রমেশ ২-০-৯-০, ধনাঞ্জয়া ২-০-১৩-০)।

শ্রীলঙ্কা: ১৯.৪ ওভারে ১৩৩/৬ (আভিশকা ১১, মিনোদ ৩৬, সামারাবিক্রমা ৮, শানাকা ৩, ধনাঞ্জয়া ৪০*, হাসারাঙ্গা ১৫, রমেশ ২, চামিকা ১২*; ভুবনেশ্বর ৪-০-২১-১, সাকারিয়া ৩.৪-০-৩৪-১, বরুণ ৪-০-১৮-১, চাহার ৪-০-২৭-১, কুলদিপ ৪-০-৩০-২)।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ধনাঞ্জয়া ডি সলভা।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: