সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মুসলিম হওয়ায় মন্ত্রিত্ব ‘হারান’ ব্রিটিশ নারী এমপি অর্ধেক জনবলে চলবে সরকারি-বেসরকারি অফিস, প্রজ্ঞাপন জারি চিত্রনায়িকা শাবনাজ করোনায় আক্রান্ত এরদোগানকে অপমান করার অভিযোগে তুর্কি সাংবাদিক কারাগারে কুড়িগ্রাম-লালমনিরহাট সীমান্তে জব্দকৃত মাদক ধ্বংস ফেনী-১ আসনের সংসদ সদস্য শিরীন আখতার করোনায় আক্রান্ত যশোরে ট্রাক চোরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ মানিকগঞ্জে এ,এম সায়েদুর রহমান স্মৃতি টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু ফেনীতে করোনা উপসর্গে নারীর মৃত্যু মোংলা বন্দর জেটিতে রাবার ফেন্ডার স্থাপন চুক্তি স্বাক্ষর পীরগঞ্জে কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হিলিতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় পথচারীকে জরিমানা মেহেরপুরে করোনা আক্রান্ত ১০ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক মামলায় যাবজ্জীবন চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে ব্যবসায়ীদের দুটি ট্রলারে ডাকাতি হাকিমপুরে নাগরিক কমিটি গঠন যশোরে ২৪ ঘন্টায় ১ শ ৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত সোনাগাজীতে টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের মাঝে ছাত্রলীগের পানি বিতরণ পুতিনকে নিয়ে মন্তব্য, পদত্যাগ করেছেন জার্মান নৌবাহিনী প্রধান করোনা টিকা প্রতি বছর দেওয়ার নিয়ম চান ফাইজার সিইও

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামী মুন্সি’ এখনও মাদ্রাসার সহ সুপার হিসাবে বহাল!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:
প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফের কোষাধ্যক্ষ ও যুবলীগ নেতা মনিরুল ইসলামের হত্যাকান্ডের ৭ বছর আজ রবিবার। ২০১৪ সালের ২৪ অক্টোবর শিবগঞ্জ স্টেডিয়ামের কাছে পরিকল্পিতভাবে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয় এই ব্যবসায়ী নেতাকে। এই হত্যা মামলার বিচারকার্যও শেষ হয়েছে। ২০১৯ সালের ২০ জুন ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক। তবে, উচ্চ আদালতে আসামীরা আপিল করায় রায় কার্যকর আদেশ অপেক্ষামান রয়েছে।
কিন্তু মৃত্যুদণ্ড সাজাপ্রাপ্ত অন্যতম আসামী মো. সিরাজুল ইসলাম মুন্সিকে এখনো তার চাকরী থেকে বরখাস্ত ও এমপিও বাতিল করা হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। নিহত মনিরুল ইসলামের স্ত্রী ও মামলার বাদী রহিমা বেগম জানান, মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত অন্যতম আসামী সিরাজুল ইসলাম মুন্সি বালিয়াদিঘী দারুস সুন্নাহ গোলিস্থায়া দাখিল মাদ্রাসায় সহ-সুপার পদে চাকরী করতেন।মামলার রায় হবার পরও তার নাম এম.পি.ও তালিকা থেকে না কাটায় কাগজ কলমে এখনও চাকুরিরত আছে সে।

বাদী রহিমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমার স্বামীকে আসামীরা পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। আদালতও এর রায় ঘোষণা করেছেন। আমি এ রায়ের প্রতি সন্তুষ্ট। তবে, আসামীদের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে আপিল করায় রায় কার্যকরের অপেক্ষায় রয়েছি। কিন্তু দুঃখজনক বালিয়াদিঘী দারুস সুন্নাহ গোলিস্থীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আব্দুল মালেক মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামী সিরাজুল ইসলাম মুন্সিকে এখন পর্যন্ত চাকরীতে বহাল রেখেছেন। যা সম্পূর্ণ অবৈধ। আসামীদের রায় কার্যকর করতে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোরদাবী জানাচ্ছি, যেনো সিরাজুল ইসলাম মুন্সিকে দ্রুত তার চাকরী থেকে বরখাস্ত করা হয়।
অপরদিকে বালিয়াদিঘী দারুস সুন্নাহ গোলিস্থীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আব্দুল মালেক জানান, আমি ও গভর্ণিং বডি আদালতের রায় ঘোষণার কিছুদিন পরেই মো. সিরাজুল ইসলাম মুন্সিকে চাকরী থেকে বহিষ্কার আদেশ চেয়ে নীতিমালা অনুযায়ী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের ডিজি বরাবর আবেদন পাঠিয়েছি। তার বেতন-ভাতাও বন্ধ রয়েছে। কিন্তু এখনো তার এমপিও বন্ধ হয়নি। এমপিও বাতিলের আবেদন গত ১৪ সেপ্টেম্বর-২০২১ইং তারিখে আমাদের ফেরত পাঠিয়েছেন সংশ্লিষ্ট দপ্তর। ফেরতকৃত আবেদনে বলা হয়েছে তদন্তের প্রয়োজন। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আমরা সিরাজুল ইসলাম মুন্সির এমপিও বাতিল চেয়ে পূণরায় আবেদন করবো।
এব্যাপারে শিবগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা একাডেমি সুপার ভাইজার মো. আঃ মান্নান জানান, বালিয়াদিঘী দারুস সুন্নাহ গোলিস্থীয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে সহ-সুপার সিরাজুল ইসলাম মুন্সির এমপিও বাতিলের জন্য শিবগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক অফিস এখনো কেউ আবেদন করেছে বলে জানা নাই।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৪ অক্টোবর দুপুরে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আখেরুল ইসলাম, সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মুন্সিসহ আসামীরা সিান্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ মনিরুল ইসলামকে তার শিয়ালমারা গ্রামের বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর সন্ধ্যায় শিবগঞ্জ স্টেডিয়ামের কাছে মনিরুলকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় মনিরুলের স্ত্রী রহিমা বেগম বাদী হয়ে শিবগঞ্জ থানায় ১৫ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার বিচারকার্য শেষে ২০১৯ সালে ২০ জুন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ২ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন। এর মধ্যে সিরাজুল ইসলাম মুন্সি মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত অন্যতম আসামী।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: