বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি গড়ে তোলার জন্য ডিসিদের প্রতি রাষ্ট্রপতির নির্দেশ হারিয়ে যাওয়া টাকা উদ্ধারের পর প্রকৃত মালিককে প্রদান ডিমলায় শিশু ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২ কুড়িগ্রামের সোনাভরি নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার কাপাসিয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন! অভিনেত্রী শিমুকে খুন করেন স্বামী, লাশ গুম করে বাল্যবন্ধু জাকার্তা নয়, ইন্দোনেশিয়ার নতুন রাজধানী ‘নুসানতারা’ ‘উন্নয়ন প্রকল্পের তদারকিতে ডিসিরাও থাকবেন’ রুপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের মতবিনিময় শিবগঞ্জে নবনিবার্চিত চেয়ারম্যানদের নিয়ে মাসিক সভা খুলনায় মাদক বিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদকসহ গ্রেপ্তার ১ শিবগঞ্জের বিনোদপুর কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত শেরপুরে বৃদ্ধার মাথা ফাটানো সেই নাতনি-পুত্রবধূ গ্রেফতার হিলিতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে বইছে হিমেল বাতাস মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মর্যাদাপূর্ণ জীবন নিশ্চিত করুন : ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী অনুমতি না নিয়ে নিউজ করলে খুব খারাপ হবে! শ্রীবরদীতে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্প জামালপুরে হেরোইনসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ফেরি স্বল্পতার কারণে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

বড়খাতা ইউনিয়নে আবারও নৌকার মাঝি হতে চায়: মোস্তফা জামাল সোহেল

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি:
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৭ পূর্বাহ্ন

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রতিক পেতে দৌঁড় ঝাপ শুরু করেছে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নে আবারও নৌকার মাঝি হয়ে অসমাপ্ত উন্নয়ন সমাপ্ত করতে চায় উপজেলা আওয়ামীলীগ এর উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও বড়খাতা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা জামাল সোহেল।
হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের পাইকারটারী এলাকার বাসিন্দা ৩২ বছর ধরে দায়ীত্ব পালন করা প্রাক্তন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মরহুম আজগর হোসেন আহম্মেদ এর ছেলে দুই বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা জামাল সোহেল এর বাসভবনে শনিবার এ প্রতিনিধির একান্ত স্বাক্ষাতকারে তিনি বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমার বাবা বৃহত্তর বড়খাতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিল ৩২ বছর। তার মৃত্যুর পর আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই এবং জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সরকারী ভাবে বিদেশ সফর করেছি। আমি যখন ৫ম শ্রেণীতে পড়ি তখন থেকেই আওয়ামীলীগ এর রাজনীতির সাথে জড়িত। ১৯৮৭ সালে ছাত্রলীগের ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক থাকা অবস্থায় এরশাদ বিরোধী আন্দোলন করে মামলায় ১মাস জেল হাজতে ছিলাম। বিএনপি জোট সরকারের আমলে আমার নেতৃীত্বে বিভিন্ন আন্দোলন করেছি। অনেক হামলা, মামলা মোকদ্দমা মোকাবেলা করেছি। ওয়ার্ড, ইউনিয়ন সহ উপজেলা আওয়ামীলীগ এর বিভিন্ন কমিটিতে নেতৃীত্ব দিয়েছি। বর্তমানে হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও গত ইউপি নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনিত বড়খাতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হই। সাংগঠনিক বিরোধী কোন কর্মকান্ড কখনই করি নাই, দলীয় সকল কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেছি তাই আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আবারও আমি দলীয় মনোনয়ন (নৌকা প্রতিক) প্রত্যাশী।

এ ইউনিয়নের সবচেয়ে বেশী সমস্যা, বিদ্যুৎ, দারিদ্রতা, দুর্নীতি, মাদক সহ আরো অনেক। দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি দলীয় মনোনয়ন (নৌকা প্রতিক) নিয়ে নির্বাচিত হয়ে, সমস্ত সরকারী সেবা জনগনের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিবো। বিভিন্ন প্রশিক্ষনের মাধ্যমে বেকারদের আত্বকর্মসংস্থান সৃষ্টি করে দিবো। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, দারিদ্র বিমোচন, রাস্তা ঘাট অথ্যাৎ অবকাঠামোগত উন্নয়ন করব। সবচেয়ে বেশী গুরুত্ব দিব বড়খাতা হাট বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নকে। ক্ষুধা ও ভিক্ষুক মুক্ত ডিজিটাল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলব। আবারও দল আমাকে মনোনয়ন দিলে এবারেও নৌকা প্রতিক নিয়ে আমি বিজয়ী হব ইনশাআল্লাহ।
দল যদি আপনাকে মনোনয়ন না দেয় তাহলে নির্বাচন করবেন কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমার ভোটাররা যা চাইবে তাই আমি মেনে নিব। তবে এই ইউনিয়নে আমার মত দলীয় যোগ্য কেউ নেই বলে আমি মনে করি।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: