বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি গড়ে তোলার জন্য ডিসিদের প্রতি রাষ্ট্রপতির নির্দেশ হারিয়ে যাওয়া টাকা উদ্ধারের পর প্রকৃত মালিককে প্রদান ডিমলায় শিশু ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২ কুড়িগ্রামের সোনাভরি নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার কাপাসিয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন! অভিনেত্রী শিমুকে খুন করেন স্বামী, লাশ গুম করে বাল্যবন্ধু জাকার্তা নয়, ইন্দোনেশিয়ার নতুন রাজধানী ‘নুসানতারা’ ‘উন্নয়ন প্রকল্পের তদারকিতে ডিসিরাও থাকবেন’ রুপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের মতবিনিময় শিবগঞ্জে নবনিবার্চিত চেয়ারম্যানদের নিয়ে মাসিক সভা খুলনায় মাদক বিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদকসহ গ্রেপ্তার ১ শিবগঞ্জের বিনোদপুর কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত শেরপুরে বৃদ্ধার মাথা ফাটানো সেই নাতনি-পুত্রবধূ গ্রেফতার হিলিতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে বইছে হিমেল বাতাস মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মর্যাদাপূর্ণ জীবন নিশ্চিত করুন : ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী অনুমতি না নিয়ে নিউজ করলে খুব খারাপ হবে! শ্রীবরদীতে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্প জামালপুরে হেরোইনসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ফেরি স্বল্পতার কারণে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

বাদল আমিনকে দৈনিক গণকন্ঠের প্রেসকার্ড পড়িয়ে দিলেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ

আখাউড়া ( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন

জাতীয় দৈনিক গণকন্ঠের আখাউড়া উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন আখাউড়ার প্রাণোচ্ছল মেধাবী সাংবাদিক বাদল আমিন। সম্প্রতি পত্রিকা কর্তৃপক্ষ তাকে নিয়োগ দিয়েছে প্রেসকার্ড (পরিচয়পত্র) প্রদান করেছেন। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদের ভবন সংলগ্ন বাদল আমিনের অফিসে এক অনুষ্ঠানে তাঁকে পত্রিকার কার্ড পরিয়ে দিয়েছেন আখাউড়া টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।

আখাউড়া টেলিভিশন টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সিনিয়র-সভাপতি বাদল আমিন গণকন্ঠ পত্রিকায় নিয়োগ পাওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। তাঁর সফলতা কামনা করেন বক্তারা। আখাউড়া টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি ও বাংলা টিভির আখাউড়া প্রতিনিধি মোঃ সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ও মাইটিভির আখাউড়া প্রতিনিধি মোঃ জালাল হোসেন মামুন সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বাদল আমিনের গলায় কার্ড পরিয়ে দেন।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ-সম্পাদক ও বঙ্গটিভি এবং দৈনিক বাংলাদেশ বুলেটিন এর আখাউড়া প্রতিনিধি রুবেল আহমেদ, দৈনিক গণজাগরণের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি ময়নাল হক ভূইয়া (মইনুল) ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের দলিল লিখক মোঃ জসিম সরকার। এসময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সাংবাদিক নেতারা বলেন, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে বাদল আমিন ইতোমধ্যে পাঠকের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। উপজেলা জুড়ে পাঠক মহলে তিনি একটি পরিচিত নাম। সমাজের অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম প্রকাশে তিনি নির্ভিক। নতুন কর্মস্থল গঠকন্ঠ পত্রিকায়ও তিনি অসহায়, অবহেলিত, নিপীড়িত মানুষের খবর বেশি বেশি তুলে ধরবেন। সাংবাদিকরা তাঁর সাফল্য কামনা করেন।

বক্তারা আরও বলেন, সাংবাদিকতা ছাড়াও বাদল আমিন দলিল লিখক ও সার্ভেয়ার আমিন হিসেবে দীর্ঘ দিন ধরে সুনামের সাথে কাজ করে মানুষের আস্থা অর্জন করেন। খোঁজ নিয়ে আরও জানা যায়, স্বমহিমায় উজ্জল প্রাণোচ্ছল মেধাবী সাংবাদিক বাদল আমিন। এক নামেই যার পরিচিতি উপজেলা জুড়ে। বাদল আমিন নামটা শুনলেই প্রথমেই চোখে ভেসে উঠে হাসিখুশি প্রাণশক্তিতে ভরা সুন্দর একটি মুখ। দলিল লিখক, সার্ভেয়ার আমিন এবং সাংবাদিকতা। তিনটি পেশাতেই তিনি সমানভাবে সফল। নির্ভুল দলিল লেখা এবং সঠিকভাবে ভূমি মাপঝোঁক করে তিনি মানুষের আস্থা অর্জন করেছেন বহু আগেই।

সাংবাদিকতা পেশাতেও তিনি পাঠকমহলে সমাদৃত। এক আলোচিত নাম। খবরের ভেতরের খবর খুঁজে বের করে আনায় তার জুড়ি নেই। সমাজের অন্যায়, অবিচার, অনিয়ম প্রকাশে তিনি নির্ভিক। আবার সাফল্য, সম্ভাবনার খবরও তিনি সমানভাবে পাঠকের সামনে তুলে আনেন। অসহায়, অবহেলিত, নিপীড়িত মানুষের দু:খ, দর্দশার খবর তার মানবিক হৃদয়কে নাড়া দেয়। সেই নিপিড়ীত মানুষের সংবাদ তার মানবিক প্রতিবেদন পাঠকের হৃদয় ছুঁয়ে যায়। আবার বিনোদনের খবর মানেই বাদল আমিন। তার বিনোদনের খবরগুলো একগুঁয়েমিতে ভরা জীবনে মানুষের আনন্দের খোরাক হয়।

বাদল আমিন একজন দক্ষ সংগঠকও। তিনি কসবা-আখাউড়া উপজেলা টেলিভিশন সাংবাদিক ক্লাবের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা পেশায় জড়িত। ইতোমধ্যে তিনি জাতীয় দৈনিক একুশে সংবাদ ও ভোরের চেতনা পত্রিকায় উপজেলা সুনামের সাথে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি সিএনএন বাংলা টিভির আখাউড়া প্রতিনিধি হিসেবেও কর্মরত রয়েছেন।

জানা যায়, পৌরশহরের দেবগ্রামের সম্ভ্রান্ত খান পরিবারের সন্তান বাদল আমিন। তিনি বি.এ, বি.এড ডিগ্রী অর্জনের পাশাপাশি কৃতিত্বের সাথে এলএলবি, এলএলএম ডিগ্রিও সম্পন্ন করেছেন। তিনি শহীদ স্মৃতি কলেজে হিসাব রক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। কয়েক বছর চাকরী করে স্বেচ্ছায় চাকরী ছেড়ে দিয়ে স্বাধীনভাবে কিছু উদ্দেশ্যে দলিল লেখা এবং সার্ভেয়ার আমিন পেশা শুরু করেন। সাফল্য পান কিছু দিনের মধ্যেই। দ্রুত মানুষের কাছে পরিচিত হয়ে উঠেন তিনি। সাংবাদিকতা পেশার প্রতি তার ভালোবাসা ছিল আগে থেকেই। সেই ভালোবাসা ও দুর্বলতা থেকেই যুক্ত হন সাংবাদিকতায়।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: