শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
একনজরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৬ দলের খেলোয়াড় তালিকা অবশেষে নগরীতে নামলো স্বস্তির বৃষ্টি সৌদি জোটের হামলা: ইয়েমেনে নিহত ১৬০ ডেঙ্গুতে চলতি বছর আক্রান্ত ২১ হাজার ২শ ছাড়াল প্রতিদিন টিকা পাবে ৪০ হাজার শিশু ডেঙ্গু আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মার্কিন যুদ্ধজাহাজকে রাশিয়ার ধাওয়া টেকসই স্যানিটেশন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সমন্বিত প্রয়াসের আহ্বান ‘সরকার সবার জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর’ ওমরাহ যাত্রীদের জন্য নতুন নির্দেশনা সাম্প্রদায়িক সংঘাতের চেষ্টায় আ.লীগের এজেন্টরা জড়িত: ফখরুল দ্রব্যমূল্য থেকে মানুষের চোখ সরাতেই কুমিল্লার ঘটনা: মান্না এই সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়: সাকি প্রচণ্ড তাপে পুড়ছে দেশের ১৮ অঞ্চল সকালে দলের সঙ্গে যোগ দিলেন সাকিব রুহিয়া থানা বিএনপির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন গাইবান্ধায় বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত অস্ত্রসহ একজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৫ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত

বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা হারাতে পারবো না : বঙ্গবন্ধু

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৩ অপরাহ্ন
বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা হারাতে পারবো না : বঙ্গবন্ধু

আগামীকাল ১৫ আগষ্ট, জাতীয় শোক দিবস। এদিন প্রত্যুষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে কতিপয় বিপদগামী সেনা কর্মকর্তা বাংলার ইতিহাসে এক কালো অধ্যায় রচনা করেছিল। জাতি হারিয়ে ছিল একজন স্বাধীনচেতা মহান নেতাকে,দেশ হারিয়ে ছিল মুক্তিকামী জনতার মহানায়ক এবং স্বাধীনতার কান্ডারীকে।
স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে দৃড় নেতৃত্ব এবং আপোষহীন সিদ্ধান্ত সমুহ তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থানকে বাংলাদেশে পরিনত করতে পেরেছিল তা ধ্রুব সত্যি। বাংলাদেশ নামের একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের অভ্যুদয় পৃথিবীর মাটিতে হওয়ার সাথে সাথে মুক্ত জাতি হিসাবে বাঙ্গালীর পরিচিতি ঘটে প্রথমবারের মতো।
বাংলাদেশ ও বাঙ্গালী জাতি আজ শোকে মুহ্যমান। সারাদেশ এবং দেশের মানুষ আজ জাতির জনকের জন্য কাঁদে। “এক মুজিব লোকান্তরে ,লক্ষ মুজিব ঘরে ঘরে”। হ্যাঁ,সত্যিই তাই আজ বাংলা মায়ের কোলজুড়ে লক্ষ লক্ষ মুজিব ঘুরে বেড়ায় । মানুষ মুজিবকে নিয়ে গান গায়,কবিতা পড়ে,ছবি আঁকে,রচনা লেখে এবং সৃষ্টি করে সাহিত্য ও ইতিহাস। সারা দেশে টুঙ্গিপাড়ার খোকাকে নিয়ে যে উদ্দিপনা,প্রতিদিনের যে আহ্বান এবং মানুষের মাঝে যে উম্মাদনা তা সত্যিই বিরল ঘটনা।
বাস্তবিকভাবে বাংলাদেশে মুজিব চর্চা প্রতিদিনই হয় কোন না কোন কোন ভাবে। বিশে^র কোন দেশের মানুষ কোন নেতাকে নিয়ে এমন পাগলপারা তা দেখা যায় না। বিশেষ করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনের অর্ধ শতাব্দী পরেও একটি জাতি তার স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্ব প্রদানকারী নেতাকে নিয়ে এতো মুক্ত ও গঠনমুলক চর্চা যে করে তা কোন রাষ্ট্রে হয় বলে মনে হয় না।
বঙ্গবন্ধু ছিলেন পাহাড়সম অটল আর মহাসমুদ্রের মতো উদার মনের মানুষ। রাজনীতি দিয়ে তিনি দেশের মানুষের জন্য বিবেচনা করতেন না। তিনি হৃদয় দিয়ে মানুষের জন্য ভাবতেন। সারা পৃথিবীতে তাই এক মাত্র বাংলাদেশেই ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে মানুষ শ্লোগান দিত“এক নেতার এক দেশ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” বলে। এই শ্লোগান যে শুধু একটি দল বা কতিপয় মানুষ দিত তা নয়। দেশের আপামর মানুষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে মুক্তির যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে এই শ্লোগানটি দিত। আর তাই বঙ্গবন্ধু বলতেন হানাদার পাক বাহিনীর উদ্দেশ্যে “তোমরা আমাকে মেরে ফেলো,তাতে আমার কোন দু:খ নাই। কিন্তু আমার লাশ আমার বাঙ্গালীর কাছে ফিরিয়ে দিও”। তিনি বলতেন ,“সাত কোটি বাঙ্গালীর ভালোবাসার কাঙ্গাল আমি। আমি সব হারাতে পারি,কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা হারাতে পারবো না”।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: