বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
হিলিতে মদ খেয়ে মাতলামির দায়ে কথিত সাংবাদিকের ১০ দিনের কারাদন্ড নগরকান্দায় বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা, চালক নিহত দেওয়ানগঞ্জে ফসলের নিবিড়তা বৃদ্ধিকরনে অবহিতকরণ কর্মশালা ধামইরহাটে নৌকা প্রার্থী ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী কমলের বিশাল কর্মী সভা গাইবান্ধায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড বাড়িতে বাবার লাশ রেখে পরীক্ষা হলে মেরাজ শিবগঞ্জে নদী ভাঙন আতঙ্কে গ্রামবাসী, পরিদর্শনে পাউবি বকশীগঞ্জে তিন করাত কল মালিককে জরিমানা নাচোল উপজেলা চেয়ারম্যান কাদেরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ মানিকগঞ্জে পুলিশ সুপারের সাথে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মতবিনিময় সভা দেড়বছর পর যাত্রা করলো বেনাপোল এক্সপ্রেস ক্যামব্রিয়ানের কোটি কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি কৃষি জমি নষ্ট করে বালু ভরাট চলমান উন্নয়নকে প্রশ্নের মুখে শিবপুরে দরিদ্র কৃষকের স্বপ্ন ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা লেডি বাইকার রিয়াকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট দশ বছরে টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে: প্রধানমন্ত্রী ‘অতিশয় বৃহৎ সংগ্রামের’ জন্য প্রস্তুত হতে বললেন কিম এবার প্রতিবেশী ভারতে ‘ওমিক্রন’ শনাক্ত মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর হামলায় পালাচ্ছে হাজার হাজার বাসিন্দা আগামী তিন দিন বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে- আবহাওয়া অধিদপ্তর

ফেনীতে জমিজমার বিরোধে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা, ভাসুরের যাবজ্জীবন

ফেনী প্রতিনিধি:
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

ফেনীর সোনাগাজীতে পারিবারিক জমিজমার বিরোধে ঝগড়ার জেরে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার দায়ে ভাসুর কামাল উদ্দিনকে (৬০) যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া দুই ভাসুরপুত্র জয়নাল আবদীন (৩৩) ও সাহাব উদ্দিনকে (৪০) ৫ বছর ও ২ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, ১০ হাজার ও ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ডে রায় প্রদান করা হয়। ভাসুরের স্ত্রী ফাতেমা বেগম ও মেয়ে লাভলী আক্তারকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

তাঁরা সবাই ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার চর খোয়াজ গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষনার সময় আসামীরা সবাই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে ভাইয়ের ছেলে সাহাব উদ্দিন পলাতক রয়েছেন। আজ বুধবার ফেনীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ মো. কায়সার মোশাররফ ইউসুফ আদালতে এ রায় প্রদান করেন। মামলার এজহার ও আদালত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০০৫ সালের ২২ ডিসেম্বর রাত ১০টার দিকে ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার চর খোয়াজ গ্রামে পারিবারিক জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাড়ীতে ঝগড়ার সুত্রপাত হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও মারামারি শুরু হয়। এসময় বড় ভাই কামাল উদ্দিনের লাঠির আঘাতে ছোট ভাই সফি উল্যার স্ত্রী নুরের নাহার (৩৫) মারাত্মক আহত হয়।

তাকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও রাতেই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরদিন তিনি চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় ২০০৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর স্বামী সফি উল্যা বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে বড় ভাই কামাল উদ্দিন, তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম, দুই ছেলে জয়নাল আবদীন ও সাহাব উদ্দিন এবং ভাইয়ের মেয়ে লাভলী আক্তারকে আসামী করা হয়। সোনাগাজী থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) শওকত আলী মামলার তদন্ত শেষে ২০০৬ সালের ২৬ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্রে ৫ জনকে আসামী করে ১৮ জনকে ঘটনার স্বাক্ষী করা হয়।

আদালত ১২ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে মামলার যাবতীয় কার্যক্রম শেষ করে বুধবার রায় ঘোষণা করেন। আদালতের ব্যাঞ্চ সহকারী রাজেন্দ্র কুমার ভৌমিক জানান, এ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড, একজনের ৩ বছর ও একজনের ২ বছর সশ্রম কারাদন্ড, ১০ হাজার ও ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ডে আদেশ দেন। দুই নারী আসামীকে মামলা থেকে বেকসুর খালাশ দেওয়া হয়েছে। সাহাব উদ্দিন নামে একজন আসামী পলাতক রয়েছেন।

ফেনী আদালতের জ্যেষ্ঠ সহকারী সরকারী কৌসুলী (এপিপি) দিজেন্দ্র কুমার কংশ বনিক জানান, সাহাব উদ্দিন নামে একজন আসামী মামলা দায়েরের পর গ্রেপ্তার হন। পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে পলাতক থাকেন। ওই পলাতক আসামী যখন গ্রেপ্তার হবেন বা আদালতে আত্মসমর্পন করবেন তথন থেকে সাজা কার্যকর হবে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: