বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় ৩২ লাখের বেশি আক্রান্ত, মৃত্যু আরও ৯৪০২ অনশন ভাঙলেন শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা দুমকিতে ২শ’ পিস ইয়াবাসহ আটক ২ দৌলতপুরে ৯ ইটভাটায় ২৯ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় কুমিল্লার কাছে ধরাশায়ী সাকিব-গেইলদের বরিশাল ফেনীতে ছাত্রদলের প্রতিকী অনশন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত পুলিশের সেবাপ্রার্থীরা যেন হয়রানির শিকার না হয়: রাষ্ট্রপতি ঝিনাইগাতীতে অজগর সাপ উদ্ধার নাজিরপুরে ছাত্রদলের প্রতীকী অনশন ফেনীতে মাদকের মামলায় ২ নারীর যাবজ্জীবন বকশীগঞ্জে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জরিমানা ডাউনিং স্ট্রিটের পার্টি তদন্ত করছে ব্রিটিশ পুলিশ ভোলাহাটে সমবায় কর্মকর্তার অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন ভোলাহাটে নবাগত জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় আটোয়ারীতে সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে সরকারি টাকা আত্মসাৎ মতলব উত্তরে যুবলীগ নেতার শীতবস্ত্র বিতরণ মানিকগঞ্জ যুবলীগের উদ্যোগে শীর্তাতদের মাঝে কম্বল বিতরণ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে সভাপতি বাদশা ভাঙ্গুড়ায় মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় কিশোরের আত্মহত্যা

প্রতিদিন টিকা পাবে ৪০ হাজার শিশু

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন
প্রতিদিন টিকা পাবে ৪০ হাজার শিশু

ব্যাপক পরিসরে স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনতে পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। প্রতিদিন ২১ কেন্দ্রে ৪০ হাজার শিশুকে টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে এ কার্যক্রম শুরু হতে পারে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, স্কুলে আসতে শুরু করেছে ছোট ছোট ছেলেমেয়ে।তাদের সুরক্ষিত রাখতে টিকাদানের সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রতিদিন ১২-১৭ বছর বয়সী ৪০ হাজার শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া হবে। আশা করি, আসছে ৩০ অক্টোবর এ কার্যক্রম শুরু হবে।

মাউশির মহাপরিচালক বলেন, ঢাকা মহানগরীর স্কুল ও কলেজ মিলিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে ৭৮৩টি।এগুলোতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৬ লাখ ১৫ হাজার। তাদের প্রথম ধাপে টিকার আওতায় আনা হবে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ কার্যক্রম শুরু হবে। সেখানে শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার জন্য ২০০টি বুথ থাকবে।

শিক্ষার্থীদের টিকাদানের প্রক্রিয়া সম্পর্কে গোলাম ফারুক বলেন, প্রথমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা চূড়ান্ত করা হবে।এরপর সেগুলোর শিক্ষার্থীরা যেন সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে পারে, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পরে স্কুল অনুযায়ী টিকাদানের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। এতে সে কার্যক্রম সুশৃঙ্খলভাবে সম্পন্ন হবে।

তিনি বলেন, দেশের ২১টি কেন্দ্রে টিকা দেয়ার পরিকল্পনা আছে। ঢাকা মহানগরীতে টিকাদান কার্যক্রম শেষ হলে এসব পয়েন্টে শুরু হবে।টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষার্থীসহ সব শিক্ষার্থীকে সমান গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। কারণ, টিকার প্রাপ্যতা নিয়ে সংকট হবে না।

বেশিরভাগ শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া হলেই জানুয়ারি থেকে স্কুল-কলেজে স্বাভাবিক পাঠদান শুরু হবে বলেও জানান মাউশি মহাপরিচালক।তাই ইতোমধ্যে ১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের করোনা টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: