শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশে করোনায় আরও ২০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৪৪০ মানিকগঞ্জে নারী হত্যায় স্বামী-স্ত্রী গ্রেপ্তার সুন্দরবনের রুপার খাল থেকে মৃত বাঘ উদ্ধার দিনাজপুরের হিলিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস শেরপুরের হরিজনরা পাচ্ছেন ছয়তলা ভবন অসহায় শিক্ষার্থীদের পাশে  হিরন ও হমিদা এডুকেশনাল ট্রাস্ট দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কুড়িগ্রামে ৬ দশমিক ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস উজিরপুরে ব্রিজ ভেঙে ভেকুসহ লরি খালে ফেনী সমিতি ঢাকার উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ পাকিস্তানে সন্ত্রাসীদের হামলায় ১০ সেনা নিহত ফেব্রুয়ারিতেই ইউক্রেনে হামলা করতে পারে রাশিয়া : বাইডেন হন্ডুরাসের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট জিওমারা কাস্ত্রো ঘরে ফিরে মুশফিকদের কাছে হারল চট্টগ্রাম ভোলায় বেগুন চাষে কৃষকদের মাঝে সাড়া ব্রাজিলকে রুখে দিল ইকুয়েডর এবারের আইপিএলের সব খেলা হবে এক শহরে! মেসি বিহীন জিতলো আর্জেন্টিনা রাজধানীতে ইয়াবা-হেরোইনসহ ৫৯ জন গ্রেফতার ইউক্রেন সংকট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক ডেকেছে যুক্তরাষ্ট্র ভারতী এয়ারটেলে শত কোটি ডলার বিনিয়োগ গুগলের

দ্রুতই মেয়েদের পড়ার অনুমতি দেওয়া হবে: তালেবান

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন
দ্রুতই মেয়েদের পড়ার অনুমতি দেওয়া হবে: তালেবান
আফগানিস্তানে মেয়েদের স্কুল

আফগানিস্তানে মাধ্যমিক স্কুলে দ্রুতই সব মেয়েকে পড়ার অনুমতি দেয়া হবে বলে জাতিসংঘের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তাকে জানিয়েছে তালেবানের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষামন্ত্রী নুরুল্লাহ মুনির। তিনি জানান, এ বিষয়ে শিগগিরই পরিকল্পনা ঘোষণা করতে যাচ্ছে তালেবান সরকার।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক শহরে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান তিনি।

বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সপ্তাহে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে যান জাতিসংঘের শিশুবিষয়ক জরুরি তহবিল সংস্থা ইউনিসেফের উপনির্বাহী পরিচালক ওমর আবদি। সাংবাদিকদের তিনি জানান, আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের পাঁচটিতে এরই মধ্যে মাধ্যমিকের মেয়ে শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাওয়া শুরু করেছে। এ প্রদেশগুলো হলো আফগানিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ বালখ, জাওজান ও সামানগান, উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কুন্দুজ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় উরজগান।

ইউনিসেফের কর্মকর্তা আবদি জানান, তালেবানের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষামন্ত্রী নুরুল্লাহ মুনির তাকে বলেছেন, ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে শুরু করে মাধ্যমিক পর্যন্ত সব মেয়ে যাতে স্কুলে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে, এ নিয়ে পরিকল্পনা করছে আফগান সরকার। আগামী দু-এক মাসের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

তিনি আরও বলেন, আফগানিস্তানের মাধ্যমিক স্কুলের লাখ লাখ মেয়ে শিক্ষার্থী প্রায় এক মাস ধরে শিক্ষা থেকে বঞ্চিত। আমরা তালেবান সরকারকে অনুরোধ করেছি, দ্রুত ওই শিক্ষার্থীদের যেন স্কুলে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের প্রথম শাসনামলে আফগান মেয়ে ও নারীদের শিক্ষার অধিকার খর্ব করা হয়। এ ছাড়া চাকরি করা বা জনসমাগমস্থলে যাওয়ারও অনুমতি ছিল না নারীদের। এ বছর ১৫ আগস্ট কাবুল পতনের পর আফগানিস্তানের ক্ষমতা ২০ বছর পর ফিরে পায় তালেবান।

আগের শাসনামলের মতো এবারও যাতে নারীদের শিক্ষা ও চাকরি করার সুযোগ থেকে দূরে ঠেলে দেয়া না হয়, এটি নিশ্চিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় প্রায় দুই মাস ধরে তালেবানের নতুন অন্তর্বর্তী সরকারকে চাপ দিয়ে যাচ্ছে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: