রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সরকার খালেদা জিয়াকে ভয় পায় : মির্জা ফখরুল দেশে করোনায় শনাক্ত নামল ছয় শতাংশের নিচে সামঞ্জস্যপূর্ণ সাজার চর্চা নিশ্চিতে নীতিমালা প্রণয়নে হাইকোর্টের রুল নিজ চার সন্তানকে বিষ খাইয়ে, আগুন পুড়ে আত্মহত্যাচেষ্টা মায়ের! মামলায় ‘পলাতক’, অথচ স্কুলের বেতন তুলছেন শিক্ষক রাণীশংকৈলে বীরঙ্গনা ঐক্য সংঘের সমাবেশ ইঁদুর মারার বিষকে চকলেট ভেবে খেয়ে শিশুর প্রাণ গেল বিয়ে বাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ কালকিনিতে প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বেঁড়া দিয়ে চাষাবাদ লোকালয়ে আসা হরিণ বনে ফেরত বাংলাদেশ চাইলে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা করবে জাতিসংঘ আগামীকাল দেবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন, ঝুঁকিতে ৬ কেন্দ্র আত্রাইয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মিত হলো দৃষ্টিনন্দন শিশুপার্ক ভোলায় গ্রাহকদের হাজার কোটি টাকা নিয়ে উধাও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে লাভ নেই: তথ্য প্রতিমন্ত্রী অবশেষে তামিম মাঠে ফিরে এলেন ইভ্যালি নিয়ে যা বললেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যাচ জিতলেই আড়াই লাখ টাকা পুরস্কার ৫৯টি আইপিটিভি বন্ধ করে দিলো বিটিআরসি ‘বিদেশি ফুটবলার’ আনায় জেমির ওপর ক্ষুব্ধ সালাউদ্দিন

ড. ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে শ্রম আদালতে মামলা

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৭ অপরাহ্ন
ড. ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে শ্রম আদালতে মামলা

শ্রম আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান এবং শান্তিতে নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ঢাকার শ্রম আদালতে মামলাটি করেছেন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের শ্রম পরিদর্শক আরিফুজ্জামান। রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতের পেশকার জামাল উদ্দিন গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অপর তিনি আসামি হলেন- গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আশরাফুল হাসান, প্রতিষ্ঠানটির বোর্ড পরিচালক নুর জাহান বেগম ও মো. শাহজাহান। আগামী ১২ অক্টোবরের মধ্যে চার আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন আদালত।

ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতের পেশকার জামাল উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের শ্রম পরিদর্শক আরিফুজ্জামান ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চারজনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইনে একটি মামলা করেন। আদালত ১২ অক্টোবর তাদের আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তর ড. ইউনূস-এর গ্রামীণ টেলিকম পরিদর্শনে গেলে সেখানে শ্রম আইনের কিছু লঙ্ঘন নজরে আসে। এর মধ্যে রয়েছে, ১০১ জন শ্রমিক-কর্মচারীকে স্থায়ী করার কথা থাকলেও তাদের স্থায়ী করা হয়নি। শ্রমিকদের অংশগ্রহণের তহবিল ও কল্যাণ তহবিল গঠন করা হয়নি। এছাড়া কোম্পানির লভ্যাংশের ৫ শতাংশ শ্রমিকদের দেওয়ার কথা থাকলেও তা তাদের দেওয়া হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ