রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ফরিদপুরের সালথায় ইমাম বাড়িতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা একনজরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৬ দলের খেলোয়াড় তালিকা অবশেষে নগরীতে নামলো স্বস্তির বৃষ্টি সৌদি জোটের হামলা: ইয়েমেনে নিহত ১৬০ ডেঙ্গুতে চলতি বছর আক্রান্ত ২১ হাজার ২শ ছাড়াল প্রতিদিন টিকা পাবে ৪০ হাজার শিশু ডেঙ্গু আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মার্কিন যুদ্ধজাহাজকে রাশিয়ার ধাওয়া টেকসই স্যানিটেশন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সমন্বিত প্রয়াসের আহ্বান ‘সরকার সবার জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর’ ওমরাহ যাত্রীদের জন্য নতুন নির্দেশনা সাম্প্রদায়িক সংঘাতের চেষ্টায় আ.লীগের এজেন্টরা জড়িত: ফখরুল দ্রব্যমূল্য থেকে মানুষের চোখ সরাতেই কুমিল্লার ঘটনা: মান্না এই সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়: সাকি প্রচণ্ড তাপে পুড়ছে দেশের ১৮ অঞ্চল সকালে দলের সঙ্গে যোগ দিলেন সাকিব রুহিয়া থানা বিএনপির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন গাইবান্ধায় বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত অস্ত্রসহ একজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৫

টিকা আনতে নিজেই ছুটলেন ইউপি চেয়ারম্যান

দেবীগঞ্জ (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন
টিকা আনতে নিজেই ছুটলেন ইউপি চেয়ারম্যান

ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে কোভিড-১৯ টিকা গ্রহীতাদের ভীর। লাইনে দাঁড়িয়ে সাস্থ্যবিধি মেনে সবাইকে টিকা গ্রহনে সহযোগিতা করছেন ইউপি চেয়ারম্যান। দুপুর ৩ টা নাগাদ স্বাস্থ্যকর্মীরা জানালেন টিকা শেষ! পরিষদ চত্বরে তখনো প্রায় দেড়শত মানুষ! টিকা নিতে ইউনিয়নের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছেন মানুষ। সারাদিন অপেক্ষা করেও মানুষ টিকা না নিয়ে ফিরে যাবে, বিষয়টা মানতে পারলেন না চেয়ারম্যান! কল দিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে। বললেন, ‘যেভাবে পারেন আমার ইউনিয়নের জন্য আরো কমপক্ষে দেড়শ টিকা দিতে হবে, আমি আসছি’। পরে নিজেই মোটরসাইকেল চালিয়ে প্রায় ১৫ কিঃমিঃ দূরত্বের দেবীগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে টিকা এনে স্বাস্থ্যকর্মীদের হাতে তুলে দেন।

মানুষটি হলেন পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলাম রহমান সরকার। গতকাল সারাদেশের ন্যায় টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদে কোভিড-১৯ টিকা প্রদান কার্যক্রম ছিল। সকাল ৯ টা থেকে টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের কেন্দ্রে টিকার রেজিষ্ট্রেশন ও টিকাদান চলছিল। বিকাল ৩ টা নাগাদ স্বাস্থ্যকর্মীদের নিকট মজুদ থাকা ৬০০ ডোজ টিকা শেষ হয়। বিষয়টি চেয়ারম্যান জানতে পারলে চৌকিদার সাথে নিয়ে সদর হাসপাতাল থেকে দেড়শ টিকা নিয়ে পরিষদের টিকা কেন্দ্রে যান।
টিকা নিতে আসা ষাটোর্ধ গোলাপ মিঞা বলেন, ‘পরিষদে টিকা নিতে আইসাও যখন টিকা পাইছিলাম না, তখন আমাগো চেয়ারম্যান সদর থাইকা টিকা আইনা দিছে’। টিকা নিতে আসা হুমায়ুন কবির রিপন বলেন ‘ চেয়ারম্যান সাহেব পরে গিয়ে টিকা না আনলে আমি টিকা নিতে পারতাম না!’। তারা চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ দেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান বলেন ‘ আমি জনগণের প্রয়োজনে স্বার্থপর হতে পারি, যখন শুনলাম টিকা শেষ, তখন টিকার জন্য আমি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে অনুরোধ করি। আমি নিজেই সদর হাসপাতালে গিয়ে আরো দেড়শ টিকা নিয়ে আসি এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের হাতে তুলে দেই। টিকা নিতে আসা সকলেই সুষ্ঠুভাবে টিকা নিয়ে বাড়ী ফিরে যায়’ ।
এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা হাচিনুর রহমান বলেন, চেয়ারম্যান সাহেবের অনুরোধে তিনি টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়নে আরো দেড়শ টিকা সরবরাহ করেন এবং সকল টিকা সুষ্ঠভাবে দেয়া হয়েছে।
গোলাম রহমান সরকার ২০১১ সাল থেকে টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন।
উল্লেখ্য যে, গতকাল উপজেলার ১০ টি কেন্দ্রে ৭ হাজার ৩ শত ২৮ জনকে কোভিড টিকা দেয়া হয়।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: