রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশে পৌঁছালো প্রবাসীদের উপহারের ২৫০ ভেন্টিলেটর জয় দিয়ে সফর শেষ করতে চায় টাইগাররা জাপান ৩০ লাখ ডোজেরও বেশি অ্যাস্ট্রাজেনিকা টিকা পাঠাবে : মোমেন ২১ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে সংক্রমণে ফের শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, মৃত্যুতে ইন্দোনেশিয়া দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১৯৫, শনাক্ত ৬৭৮০ গোপালগঞ্জে লকডাউন কার্যকর করতে জেলা তথ্য অফিসের পথপ্রচার অব্যাহত গোপালগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত ৫ টি দোকানকে জরিমানা করেছে আইসিইউ না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে করোনা রোগীদের দেশে পৌঁছালো জাপানের উপহারের আড়াই লাখ টিকা অনিশ্চয়তায় প্রতিটি দিন কাটায় জাহানারা বেগম ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ১০৪ জন হাসপাতালে চিরনিদ্রায় শায়িত ফকির আলমগীর হানা দিতে পারে করোনা’র নতুন ভ্যারিয়েন্ট যেসব শর্তে খোলা থাকবে বীমা অফিস রবিবার থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু শোক মাসের কর্মসূচি সীমিত পরিসরে পালনের সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগের ঈদে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার গবাদিপশু কোরবানি করোনা’র সংক্রমণ বাড়লে অবস্থা ভয়ানক হতে পারে: কাদের শহীদ মিনারে ফকির আলমগীরকে শেষ শ্রদ্ধা

চীনে ভয়াবহ বন্যায় ১২ জন নিহত

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০২:১৩ পূর্বাহ্ন
চীনে ভয়াবহ বন্যায় ১২ জন নিহত

ইউরোপের পর এ বার চীনে আচমকা বন্যায় ভেসে গেল ঘরবাড়ি। এতে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১২ জন। জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। রাস্তায় নেমেছে চীনের সেনাও। বহু যুগের মধ্যে একদিনে এত বৃষ্টি দেখেনি মধ্য চীনের হেনান প্রদেশ।

আবহাওয়া দপ্তরের মতে গতকাল মঙ্গলবার যে বেগে বৃষ্টি হয়েছে, তা অস্বাভাবিক। এক ঘণ্টায় ২০০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হয়েছে প্রদেশের কোনো কোনো শহরে। যার জেরে জলমগ্ন হয়ে যায় প্রায় পুরো প্রদেশটিই। তার উপর দুইটি বাঁধ ভাঙার খবর মিলেছে। তার মধ্যে একটি ইয়েলো নদীর উপর। হোয়াংহো নদীর উপরের বাঁধও ভেঙেছে বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে বন্যার পানি আরো বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঘটনার পরেই রাস্তায় নেমেছে চীনের সেনা। বন্যা বিধ্বস্তদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু করেছে তারা। সেনা সূত্রের দাবি, এখনো পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে পাঁচ জন। তবে চীনের সরকারি টেলিভিশনের দাবি, নিখোঁজের সংখ্যা আরো বেশি। এখনো মানুষকে উদ্ধার করা হচ্ছে।

হেনানে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। সাবওয়েগুলিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একেকটি সাবওয়ের ভিতর এক কোমর পানি। বাড়িঘরেও পানি ঢুকে গেছে। বন্ধ রয়েছে যান চলাচল।

এই পরিস্থিতির মধ্যে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং আক্রান্তদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন। বিবৃতেতে তিনি বলেন, বহু বাঁধ ভেঙে গেছে। একাধিক অঞ্চলে জল ঢুকেছে। সেনা নেমেছে। কিন্তু পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। বস্তুত, বুধবার সকালে হেনান প্রদেশে ক্যাটাগরি তিন থেকে ক্যাটাগরি দুইয়ের বিপর্যয় সংকেত জারি হয়েছে। সূত্র: ডয়েচে ভেলে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ