বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সোনাগাজীতে তিন ফসলী জমি অধিগ্রহনের পাঁয়তারার প্রতিবাদ ভেঙে গেছে তিস্তার `রক্ষাকবচ`, ভয়াবহ বন্যার শংকা ফেতনা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে: তথ্যমন্ত্রী সোনারগাঁয়ে মহাসড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ হাতীবান্ধায় তিস্তার পানি বৃদ্ধি ফ্লাড-বাইপাস ভেঙ্গে ভাটিতে ভয়াবহ বন্যা বাঘাইছড়িতে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) উদ্যাপিত বুকে পাঁ দিয়ে যুবক কে নির্যাতন করলেন ইউপি চেয়ারম্যান উলিপুরে তিস্তা নদীতে ডুবে এক ব্যক্তি নিখোঁজ ফরিদপুরে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ও শনাক্ত দুটোই কমেছে বকশীগঞ্জে স্কুলছাত্রী ধর্ষনের অভিযোগে একজন আটক কাল পূর্বাচলে নবনির্মিত প্রদর্শনী কেন্দ্র উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী মোংলায় ইতালীয় ধর্মযাজক ফাদার মারিনো রিগনের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধিতে সরকারের সিন্ডিকেট জড়িত: রিজভী মোংলায় নিজ কন্যা শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক পিতা গ্রেফতার মাইক্রোবাস ও ট্রাকের মুখোমুখী সংঘর্ষে ৫ জন আহত ‘রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলেই ধর্মকে ব্যবহার করে বিভাজন তৈরি’ টিকা নিবন্ধনে বয়সসীমা কমিয়ে ১৮ বছর নির্ধারণ মতলবে পানিতে ডুুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু তিস্তা ব্যারেজের ৫২টি গেট খুলে দিলো ভারত, রেড অ্যালার্ট জারি

গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, হুমকির মুখে নীলকুঠি আশ্রয়ণ প্রকল্প

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৮ অপরাহ্ন
গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, হুমকির মুখে নীলকুঠি আশ্রয়ণ প্রকল্প

গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানি, মালিবাড়ী, ঘাগোয়া, মোল্লারচর ইউনিয়ন, সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, চন্ডিপুর, কাপাসিয়া, শ্রীপুর ইউনিয়ন, ফুলছড়ি উপজেলার ফুলছড়ি, গজারিয়া, খাটিয়ামারী ও সাঘাটা উপজেলার হলদিয়া, ফজলুপুরসহ ১৭টি ইউনিয়ন বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার ৫০ হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। ব্রহ্মপুত্র,ঘাঘট, যমুনা, করতোয়া, তিস্তা নদীর পানি হু হু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ফুলছড়ি পয়েন্টে ৫২ সেন্টিমিটার এবং ঘাঘট নদীর পানি শহরের নতুন ব্রিজ এলাকায় বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বন্যায় জেলার চার উপজেলার ১ হাজার ৫১৫ হেক্টর জমির রোপা আমন ও সবজির ক্ষেত পানি নিচে তলিয়ে গেছে। বন্যা কবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। ফুলছড়ি উপজেলার সাবেক হেড কোয়ার্টার থেকে সামনে যমুনা নদীর দিকে তাকালেই চোখে পড়বে নীলকুঠি আশ্রয়ণ প্রকল্প। চারপাশে থৈ থৈ পানি। দুটি ব্রিজসহ আশ্রয়ণ প্রকল্পের রাস্তা এখন পানির নিচে।

ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শামসুল আলম সরকার বলেন, বন্যায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ২ শতাধিক মানুষ। তাদের যোগাযোগের জন্য নৌকা ছাড়া বিকল্প কোনো যান নাই। বালু দিয়ে তৈরি এই আশ্রয়ণ পানির শ্রোতে কখন ধসে যাবে সেই আতঙ্কে আছে সেখানকার বাসিন্দারা। গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, পানি বাড়লেও বড় বন্যা হওয়ার আশঙ্কা নেই। কয়েক দিনের মধ্যই পানি কমতে শুরু করবে। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল মতিন বলেন, বন্যা কবলিত চার উপজেলায় দুই লক্ষ টাকা ও ৮০ মেট্রিক চাল বরাদ্ধ করা হয়েছে। শিগগিরই তা বিতরণ করা হবে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: