রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশে পৌঁছালো প্রবাসীদের উপহারের ২৫০ ভেন্টিলেটর জয় দিয়ে সফর শেষ করতে চায় টাইগাররা জাপান ৩০ লাখ ডোজেরও বেশি অ্যাস্ট্রাজেনিকা টিকা পাঠাবে : মোমেন ২১ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে সংক্রমণে ফের শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, মৃত্যুতে ইন্দোনেশিয়া দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১৯৫, শনাক্ত ৬৭৮০ গোপালগঞ্জে লকডাউন কার্যকর করতে জেলা তথ্য অফিসের পথপ্রচার অব্যাহত গোপালগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত ৫ টি দোকানকে জরিমানা করেছে আইসিইউ না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে করোনা রোগীদের দেশে পৌঁছালো জাপানের উপহারের আড়াই লাখ টিকা অনিশ্চয়তায় প্রতিটি দিন কাটায় জাহানারা বেগম ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ১০৪ জন হাসপাতালে চিরনিদ্রায় শায়িত ফকির আলমগীর হানা দিতে পারে করোনা’র নতুন ভ্যারিয়েন্ট যেসব শর্তে খোলা থাকবে বীমা অফিস রবিবার থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু শোক মাসের কর্মসূচি সীমিত পরিসরে পালনের সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগের ঈদে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার গবাদিপশু কোরবানি করোনা’র সংক্রমণ বাড়লে অবস্থা ভয়ানক হতে পারে: কাদের শহীদ মিনারে ফকির আলমগীরকে শেষ শ্রদ্ধা

কেন ভারতীয়দের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ?

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন
কেন ভারতীয়দের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ?

নিরাপত্তার কারণে ২০ লাখ ভারতীয় অ্যাকাউন্ট বাতিল করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। গত ১৫ মে থেকে ১৫ জুন- এক মাসের মধ্যেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে সংস্থাটি। এই সময়ের মধ্যে ৩৪৫টি অভিযোগ জমা পড়েছে হোয়াটসঅ্যাপের কাছে। তার মধ্যে ৬৩ ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নিয়েছে তারা।

নিউজএইটিন অনলাইন জানিয়েছে, ভারতে নতুন তথ্য প্রযুক্তি আইন চালু হওয়ার পর থেকে ভারতে ফেসবুক, টুইটার এবং হোয়াটসঅ্যাপের মতো সংস্থাগুলোর সংগে মতবিরোধ চলছে দেশটির সরকারের।

ভারত সরকার বলছে, জাতীয় সুরক্ষাকে সবার ওপরে রেখে দেশের আইন মেনে ব্যবসা করতে পারবে সংস্থাগুলি। অন্যথায় নতুন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রথমদিকে দেশের আইন এবং সরকারের কড়া নির্দেশিকা মানতে অস্বীকার করলেও চাপের মুখে ফেসবুক-টুইটার ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নীতিতে বদলাতে শুরু করেছে।

কেন্দ্রের নতুন তথ্যপ্রযুক্তি আইনে বলা হয়েছে, ৫০ লাখের বেশি গ্রাহক রয়েছে, এমন সোশ্যাল সাইটগুলিতে প্রতি মাসেই কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট পেশ করতে হবে। একইসংগে জানাতে হবে- তাদের কাছে কত অভিযোগ জমা পড়ছে এবং তার প্রেক্ষিতে কতগুলি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ক্ষতিকারক বা স্বয়ংক্রিয় অনুমোদিত বাল্ক মেসেজ থেকে অ্যাকাউন্টগুলিকে সুরক্ষা দেওয়াই অন্যতম লক্ষ্য বলে রিপোর্টে জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, ২০১৯ সালের পর থেকে এই ধরনের অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেড়েছে উল্লেখযোগ্যভাবে।

গ্রাহকদের নিরাপদ পরিবেশ দিতে এবং ক্ষতিকারক, অশালীন মন্তব্য রুখতে তারা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে বলেও জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, অ্যাকাউন্টকে অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যবহার রুখতে বেশকিছু টুল ব্যবহার করছেন তারা। যাতে খারাপ কিছু ঘটার আগেই তা রুখে দেওয়া সম্ভব হয়।

ভারত সরকারের দাবি, সামাজিক মাধ্যমকে অসৎ উদ্দেশ্যে যাতে কেউ ব্যবহার করতে না পারেন সেই লক্ষ্যেই নতুন আইন আনা হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, সামাজিক মাধ্যমের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে আপত্তিকর ছবি, লেখা ছড়ানো হলে, তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে ২৪-৩৬ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নিতে হবে। নতুন আইন মোতাবেক গুগল, ফেসবুক, টুইটারের মতো সাইটগুলি আগেই তাদের রিপোর্ট জমা দিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ