রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিশু কন্যাকে ধর্ষনের অভিযোগে কিশোর আটক চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আ.লীগ থেকে লিটন বহিষ্কার গোয়ালন্দ উপজেলার ১ঘণ্টার জন্য ইউএনও দশম শ্রেণির ছাত্রী বাবলী জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু অস্ট্রেলিয়ার জয় দিয়ে সুপার টুয়েলভ শুরু করতে চায় বাংলাদেশ ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি খেলবে বাংলাদেশ অনেকবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছি: কঙ্গনা সাম্প্রদায়িক হামলার সবাইকে চিহ্নিত করেছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোনারগাঁয়ে জাতীয়পার্টির নেতৃবৃন্দ আওয়ামীলীগে যোগদান রোববার পায়রা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী ডেঙ্গুতে মৃত্যু ২, হাসপাতালে ১৮৯ মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে সৈন্য সমাবেশ, গণহত্যার শঙ্কা জাতিসংঘের হাওর বাঁচাও আন্দোলনের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত ফরিদপুরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত-১,আহত-৩০ সরকার হিন্দু সম্প্রদায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে: স্পিকার রোহিঙ্গাদের চুলের মুঠি ধরে ওপারে পাঠাতে হবে: শুভেন্দু মামলার জট কমাতে ‘মধ্যস্থতা’ প্রক্রিয়া বড় ভূমিকা রাখতে পারে: প্রধান বিচারপতি গাইবান্ধায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম লাগামহীন সাদুল্লাপুরে পরিত্যক্ত কলাগাছে ১০টি মোচা উঠানের রিংপার্টের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

কেন ভারতীয়দের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ?

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
কেন ভারতীয়দের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ?

নিরাপত্তার কারণে ২০ লাখ ভারতীয় অ্যাকাউন্ট বাতিল করেছে হোয়াটসঅ্যাপ। গত ১৫ মে থেকে ১৫ জুন- এক মাসের মধ্যেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে সংস্থাটি। এই সময়ের মধ্যে ৩৪৫টি অভিযোগ জমা পড়েছে হোয়াটসঅ্যাপের কাছে। তার মধ্যে ৬৩ ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নিয়েছে তারা।

নিউজএইটিন অনলাইন জানিয়েছে, ভারতে নতুন তথ্য প্রযুক্তি আইন চালু হওয়ার পর থেকে ভারতে ফেসবুক, টুইটার এবং হোয়াটসঅ্যাপের মতো সংস্থাগুলোর সংগে মতবিরোধ চলছে দেশটির সরকারের।

ভারত সরকার বলছে, জাতীয় সুরক্ষাকে সবার ওপরে রেখে দেশের আইন মেনে ব্যবসা করতে পারবে সংস্থাগুলি। অন্যথায় নতুন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রথমদিকে দেশের আইন এবং সরকারের কড়া নির্দেশিকা মানতে অস্বীকার করলেও চাপের মুখে ফেসবুক-টুইটার ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নীতিতে বদলাতে শুরু করেছে।

কেন্দ্রের নতুন তথ্যপ্রযুক্তি আইনে বলা হয়েছে, ৫০ লাখের বেশি গ্রাহক রয়েছে, এমন সোশ্যাল সাইটগুলিতে প্রতি মাসেই কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট পেশ করতে হবে। একইসংগে জানাতে হবে- তাদের কাছে কত অভিযোগ জমা পড়ছে এবং তার প্রেক্ষিতে কতগুলি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ক্ষতিকারক বা স্বয়ংক্রিয় অনুমোদিত বাল্ক মেসেজ থেকে অ্যাকাউন্টগুলিকে সুরক্ষা দেওয়াই অন্যতম লক্ষ্য বলে রিপোর্টে জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, ২০১৯ সালের পর থেকে এই ধরনের অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেড়েছে উল্লেখযোগ্যভাবে।

গ্রাহকদের নিরাপদ পরিবেশ দিতে এবং ক্ষতিকারক, অশালীন মন্তব্য রুখতে তারা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে বলেও জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, অ্যাকাউন্টকে অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যবহার রুখতে বেশকিছু টুল ব্যবহার করছেন তারা। যাতে খারাপ কিছু ঘটার আগেই তা রুখে দেওয়া সম্ভব হয়।

ভারত সরকারের দাবি, সামাজিক মাধ্যমকে অসৎ উদ্দেশ্যে যাতে কেউ ব্যবহার করতে না পারেন সেই লক্ষ্যেই নতুন আইন আনা হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, সামাজিক মাধ্যমের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে আপত্তিকর ছবি, লেখা ছড়ানো হলে, তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে ২৪-৩৬ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নিতে হবে। নতুন আইন মোতাবেক গুগল, ফেসবুক, টুইটারের মতো সাইটগুলি আগেই তাদের রিপোর্ট জমা দিয়েছে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: