শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অসুস্থ গাফফার চৌধুরীকে ফোন করে খোঁজ-খবর নিলেন রাষ্ট্রপতি স্কটল্যান্ড হারলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ কক্ষপথে স্যাটেলাইট স্থাপনে ব্যর্থ হয়েছে দ. কোরিয়া স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা এ মাসেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বন্ধ হচ্ছে না বৈধ-অবৈধ মোবাইল ফোন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ২১৩ অভিবাসী আটক হিন্দুদের ওপর হামলা দেশের চেতনার বেদীমূলে হামলা : তথ্যমন্ত্রী জানুয়ারিতে বাড়তে পারে ক্লাসের সংখ্যা: শিক্ষামন্ত্রী ব্যাট-বলের ভারসাম্যে খুশী মাহমুদুল্লাহ ধামইরহাটে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে পুনরায় দেলদার হোসেন সভাপতি ও সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বিশাল জয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্বে টাইগাররা ‘বিএনপি নেতারা রাজনীতি নয়, অফিসিয়াল দায়িত্ব পালন করছেন’ গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন মালিঙ্গাকে ছাড়িয়ে আফ্রিদিকে ধরে ফেললেন সাকিব রাডার কিনতে ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি সই করোনায় ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত ঠাকুরগাঁওয়ে বাল্যবিবাহের অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান ও কাজি সহ আটক ০৯ কখনও বলিনি বিশ্বকাপ জিতে বিয়ে করব: রশিদ খান নারী ও শিশু উন্নয়ন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপন ধামইরহাটে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ মন্ডলকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

কাতারের প্রথম আইনসভা নির্বাচনে নারী প্রার্থীদের ভরাডুবি

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন
কাতারের প্রথম আইনসভা নির্বাচনে নারী প্রার্থীদের ভরাডুবি

প্রথমবারের মতো কাতারে আইনসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২ অক্টোবর) দেশটিতে উপদেষ্টা শুরা কাউন্সিলের দুই-তৃতীয়াংশের জন্য ভোট গ্রহণ হয়। সেই ভোটে জিততে পারেনি ভোটে অংশ নেয়া কোনো নারী প্রার্থী।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার উপদেষ্টা শুরা কাউন্সিলের ৪৫ আসনের মধ্যে ৩০ জনকে নির্বাচিত করতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সীমাবদ্ধ ক্ষমতা দিয়ে কাতারের আমির একটি উপদেষ্টা চেম্বার হিসাবে কাউন্সিলটি গঠন করেন।

প্রাথমিক ফলে জানা গেছে, নির্বাচনে ৩০টি আসনেই পুরুষ প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে, নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন ২৮ জন নারী প্রার্থী। তাদের কেউই জিততে পারেনি।

কাউন্সিলের বাকি ১৫ সদস্যকে নিজ ক্ষমতাবলে সরাসরি মনোনয়ন দেবেন দেশটির আমির।

এর আগে শনিবার ভোটের দিন শিশুতোষ বইয়ের নারী লেখক মুনিরা বলেছেন, ভোট দেওয়ার সুযোগ পেয়ে, আমি মনে করি এটি কাতারের নতুন অধ্যায়। প্রার্থী হিসেবে নারীরা দাঁড়ানোয় আমি খুবই খুশি।

এই নির্বাচন নিয়ে মারখিয়া জেলার প্রার্থী খালিদ আলমুতাওয়াহ বলেছেন, ‘এটি আমার জন্য প্রথম অভিজ্ঞতা। এখানে থাকা এবং লোকদের সঙ্গে কথা বলা।’ একই জেলার আরেক প্রার্থী সাবান আল জাসিম বলেন, ‘এই দিনের শেষে কাতারি জনগণ সিদ্ধান্ত গ্রহণের অংশ হতে চলেছে।’

প্রসঙ্গত, কাতারের মোট জনসংখ্যা তিন লাখ ৩৩ হাজার হলেও আইন অনুযায়ী সবাই ভোট দিতে পারবেন না। ১৯৩০ সালের আগে দেশটির নাগরিকত্ব পাওয়া ব্যক্তি ও তাদের পরিবারের সদস্যরাই শুধু এই নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: