বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি গড়ে তোলার জন্য ডিসিদের প্রতি রাষ্ট্রপতির নির্দেশ হারিয়ে যাওয়া টাকা উদ্ধারের পর প্রকৃত মালিককে প্রদান ডিমলায় শিশু ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ২ কুড়িগ্রামের সোনাভরি নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার কাপাসিয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন! অভিনেত্রী শিমুকে খুন করেন স্বামী, লাশ গুম করে বাল্যবন্ধু জাকার্তা নয়, ইন্দোনেশিয়ার নতুন রাজধানী ‘নুসানতারা’ ‘উন্নয়ন প্রকল্পের তদারকিতে ডিসিরাও থাকবেন’ রুপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের মতবিনিময় শিবগঞ্জে নবনিবার্চিত চেয়ারম্যানদের নিয়ে মাসিক সভা খুলনায় মাদক বিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদকসহ গ্রেপ্তার ১ শিবগঞ্জের বিনোদপুর কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত শেরপুরে বৃদ্ধার মাথা ফাটানো সেই নাতনি-পুত্রবধূ গ্রেফতার হিলিতে শীতের তীব্রতা বেড়েছে বইছে হিমেল বাতাস মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মর্যাদাপূর্ণ জীবন নিশ্চিত করুন : ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী অনুমতি না নিয়ে নিউজ করলে খুব খারাপ হবে! শ্রীবরদীতে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা ক্যাম্প জামালপুরে হেরোইনসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ফেরি স্বল্পতার কারণে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

ইলিশ ধরা বন্ধ ॥ জাল বুনে সময় পার করছেন ভোলার জেলেরা

ভোলা প্রতিনিধি:
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন

ইলিশ ধরা বন্ধ তাই বেকার হয়েছে পড়েছেন ভোলার দুই লাখের অধিক জেলে। নদীর তীরে জাল বুনে সময় পার করছেন জেলেরা। নিষেধাজ্ঞার ৬ দিনেও চাল পায়নি অধিকাংশ জেলে। জেলেদের অভিযোগ, নিবন্ধিত জেলেদের চাল দেয়ার কথা থাকলেও এখনো চাল পানিন তারা। তবে মৎস্য বিভাগ বলছে, জেলার লালমোহন ও দৌলতখান উপজেলায় চাল বিতরণ কাজ শুরু হয়েছে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বাকি ৫ উপজেলায় চাল বিতরন কাজ শেষ হবে। ভোলা সদরের ভোলার খাল, শিবপুর ও নাঝির মাঝি ও তুলাতলী ঘাটে গিয়ে দেখা গেছে, নদীর তীরে জাল বুনছেন জেলেরা। কেউবা ট্রলার মেরামত করছেন। শিবপুরের জেলে তছির মাঝি বলেন, মাছ ধরার বন্ধ তাই বেকার হয়ে গেছে। সংসার চলছে না, এনজিও থেকে ১০ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছে, তা দিয়ে সংসার চালানোর চেষ্টা করছি। ভেদুরিয়া গ্রামের জেলে নাছির বলেন, আমার জেলে কার্ড রয়েছে, গত বছর সরকারি চাল পাইনি, এ বছর পাবো কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছি। আপাতত ধার-দেনা করে সংসার চালাচ্ছি। একই অবস্থা বিল্লাল ও কালিমুল্লা মাঝির। তারা জানালেন, জাল বুনে সময় পার করছি, মাঝ ধরার বন্ধ ৫ দিন পেরিয়ে গেছে এখনো চাল পাইনি। কবে পাবো তাও জানিনা। সংসারে অভাবে দেখা দিয়েছে। এদিকে মাছ ধরার বন্ধ থাকায় বেকার হয়ে পড়েছেন প্রায় দুই লাখ জেলে। অভাব-অনাটন আর অনিশ্চয়তার মধ্যদিয়ে দিন কাটছে জেলেদের। মাছ ধরার বন্ধ থাকায় বন্ধ হয়ে গেছে মৎস্যঘাট। ঘাটের সেই চিরচেনা দৃশ্য পাল্টে গেছে। নদীর তীরে সারি সারি নৌকাট্রলার নোঙ্গর দেয়া। জেলে পল্লীর নিরব-নিস্তব্ধ হয়ে গেছে। যেসব ঘাটগুলো জেলে পাইকার আড়দারদের হাকডাকে মুখরিত থাকতো সেসব হাক আড়ৎ এখন বন্ধ। এতে জীবিকা সংকটে পড়েছেন মৎস্যজীবরা। ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এসএম আজহারুল ইসলাম জানান, জেলায় এক লাখ ৩৬ হাজার জেলের নিবন্ধন করার হয়েছে। এরমধ্যে এক লাখ ৩২ হাজার জেলে গড়ে ২০ কেজি করে চাল পাবেন। যারা আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল তাদের বাছাই করে চাল দেয়া হবে। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে জেলার লালমোহন ও দৌলতখান উপজেলায় জেলেদের মাঝে চাল বিতরন করা হয়েছে। বাকি ৫ উপজেলায় আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে চাল বিতরণ করা শেষ হবে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: