শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ফরিদপুরের সালথায় ইমাম বাড়িতে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা একনজরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৬ দলের খেলোয়াড় তালিকা অবশেষে নগরীতে নামলো স্বস্তির বৃষ্টি সৌদি জোটের হামলা: ইয়েমেনে নিহত ১৬০ ডেঙ্গুতে চলতি বছর আক্রান্ত ২১ হাজার ২শ ছাড়াল প্রতিদিন টিকা পাবে ৪০ হাজার শিশু ডেঙ্গু আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মার্কিন যুদ্ধজাহাজকে রাশিয়ার ধাওয়া টেকসই স্যানিটেশন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সমন্বিত প্রয়াসের আহ্বান ‘সরকার সবার জন্য নিরাপদ স্যানিটেশন নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর’ ওমরাহ যাত্রীদের জন্য নতুন নির্দেশনা সাম্প্রদায়িক সংঘাতের চেষ্টায় আ.লীগের এজেন্টরা জড়িত: ফখরুল দ্রব্যমূল্য থেকে মানুষের চোখ সরাতেই কুমিল্লার ঘটনা: মান্না এই সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচন নয়: সাকি প্রচণ্ড তাপে পুড়ছে দেশের ১৮ অঞ্চল সকালে দলের সঙ্গে যোগ দিলেন সাকিব রুহিয়া থানা বিএনপির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন গাইবান্ধায় বিশ্ব খাদ্য দিবস পালিত অস্ত্রসহ একজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৫

আমিতো পাগল হয়ে যাচ্ছি: আদালতে পরীমণি

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪০ অপরাহ্ন
আমিতো পাগল হয়ে যাচ্ছি: আদালতে পরীমণি

তৃতীয় দফায় রিমান্ড শেষে পরিমণিকে আবারও কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। শনিবার (২১ আগস্ট) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আশেক ইমাম-এর আদালত এই আদেশ দেন।

এই সময় পরীমণি তাঁর আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনারা জামিন চান না কেন? আমি তো পাগল হয়ে যাচ্ছি। আপনারা জামিন চান, আপনারা আমার সংগে কী কথা বলবেন? আমি তো পাগল হয়ে যাবো। আপনারা বুঝতে পারছেন আমার কি কষ্ট হচ্ছে?’

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পরিমণি’র আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভী বলেন,পর পর তিন বার রিমােন্ডর বিষয়টি অসহনীয় হয়ে পড়েছে।
এভাবে রিমান্ডে নেওয়ায় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এই অসুস্থতা থেকে তিনি বলেছেন আমিতো পাগল হয়ে যাবো।

বনানী থানায় মাদক দ্রব্য আইনের দায়ের করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক কাজী গোলাম মোস্তফা পরীমণিকে তৃতীয় দফায় একদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করেন আজ। এরপর তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

তদন্ত কর্মকর্তা কারাগারে আটক রাখার আবেদনে বলেন, আসামি পরীমণি মামলার বিষয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করেছেন। তাঁর দেওয়া তথ্য-উপাত্ত তদন্তের স্বার্থে যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। তাঁর বিরুদ্ধে মামলার ঘটনার সংগে জড়িত থাকার বিষয়ে পর্যাপ্ত সাক্ষ্য-প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। মামলার তদন্ত সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে কারাগারে আটক রাখা একান্ত প্রয়োজন বলে মনে করছি। তাঁকে জামিন দিলে মুক্তি পেয়ে তিনি বিঘ্ন সৃষ্টি করতে পারেন ও পালাতে পারেন।

অন্যদিকে নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভীসহ আসামিপক্ষের অন্য আইনজীবীরা আদালতে পরীমণি’র সংগে কথা বলা জন্য আবেদন করেন। আদালত সেই আবেদন নামঞ্জুর করে পরীমণিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: