মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অবশেষে এসপি’র হস্তক্ষেপে থানায় মামলা! যশোরে চোরাই ইজিবাইকসহ আটক ৪ স্বাধীনতাবিরোধী চক্রই দেশের সাম্প্রদায়িক হামলার জন্য দায়ী: ইনু মানিকগঞ্জে জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস উদযাপন চকরিয়ায় পরোয়ানাভুক্ত আসামী গ্রেফতার ডিমলায় নিখোঁজের পাঁচদিন পর তিস্তা নদী থেকে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার সাম্প্রদায়িক হামলা চালিয়ে রাজনৈতিক ফায়দার চেষ্টা বিএনপি’রঃ নানক বাংলাদেশকে ৫০০ মিলিয়ন ইয়েন অনুদান দিচ্ছে জাপান এ মাসে প্রবাসী আয় ১০০ কোটি ডলার ছাড়ালো জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ডের আবেদনের সময় বাড়লো ভোলাহাটে ভেজাল আইসক্রীম কারখানায় র‌্যাবের অভিযান ৫৯ বিজিবি’র শিয়ালমারা সীমান্তে অভিযান ॥ ফেন্সিডিলসহ আটক ১ ২৪ ঘন্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন ১৯০ জন রোগী ভর্তি অপারেশন শেষে আইসিইউতে খালেদা জিয়া উমরাহ পালনে আর ১৪ দিনের অপেক্ষা নয় ভারতের কেরালা রাজ্যে বন্যায় প্রাণহানিতে মোমেনের শোক বহিস্কৃত নেতাকে মনোনয়ন দেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন বিদ্যুৎ সম্পর্কিত সব মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির সুপারিশ রৌমারীতে সার সংকটে কৃষক বিপাকে মেলান্দহে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১, আহত ২

আফগান যুদ্ধের অবসান হয়েছে: তালেবান

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন
আফগান যুদ্ধের অবসান হয়েছে: তালেবান

দুই দশক পর আবারও কাবুলে ফিরে এলো তালেবান। কাবুলের পতন, আফগান প্রেসিডেন্ট প্যালেস নিয়ন্ত্রণে নেওয়া, প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি দেশ ছেড়ে পালানো- এসব ঘটনার পর ২০ বছর ধরে চলা যুদ্ধের অবসান হয়েছে বলে ঘোষণা দিয়েছে তালেবান। খবর রয়টার্সের।

তালেবান মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম আফগান যুদ্ধ অবসানের ঘোষণা দিয়ে বলেন, তাদের শাসন পদ্ধতি ও কাঠামো শিগগিরই স্পষ্ট করা হবে। শান্তিপূর্ণ আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ডাক দিয়ে তিনি বলেন, তালেবান বিচ্ছিন্ন থাকতে চায় না।

তিনি বলেন, কোনও কূটনৈতিক কাঠামো কিংবা কোনও কার্যালয়কে লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়নি। সব কূটনীতিক মিশন এবং নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

তালেবানের এই মুখপাত্র আরও বলেন, আমরা চেয়েছিলাম দেশের স্বাধীনতা ও জনগণের মুক্তি, সেই লক্ষ্যে পৌঁছেছি। তালেবান মনে করে না বিদেশি কোনো বাহিনী আফগানিস্তানে তাদের ব্যর্থতার পুনরাবৃত্তি ঘটাবে।

এদিকে, দেশ ছাড়ার পর রবিবার (১৫ আগস্ট) রাতে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুকে পেজে এর কারণ জানান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। তিনি উল্লেখ করেন, রক্তের বন্যা এড়াতে দেশ ছাড়ার কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আশরাফ ঘানি বলেন, আমার উচিত ছিলো সশস্ত্র তালেবানের মুখোমুখি হওয়া। অথবা গত ২০ বছর ধরে যে দেশকে রক্ষা করতে জীবন উৎসর্গ করেছি, সেই প্রিয় দেশ ছেড়ে চলে যাওয়া।

তালেবান যোদ্ধাদের মুখোমুখি হওয়ার পরিস্থিতির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, এতে অগণিত দেশবাসী মারা যেতো। ধ্বংসের মুখোমুখি হতো কাবুল শহর। তালেবানরা কাবুলের মানুষের ওপর হামলা করতো। তাই রক্তের বন্যা এড়াতে দেশ ছাড়াকে শ্রেয় মনে করি।

তিনি আরও বলেন, তালেবানরা তলোয়ার ও বন্দুকের বিচারে জিতে গেছে। ইতিহাস কখনো অবৈধ ক্ষমতাকে বৈধতা দেয়নি এবং দেবেও না। আমি সব সময় আমার জাতির সেবা করে যাবো।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তান তালেবানের শাসনে ছিলো। এর মধ্যে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আল-কায়েদার নেতাদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়ার অভিযোগে ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা জোট সেখানে যৌথ অভিযান চালায়, যার মাধ্যমে তালেবান শাসনের অবসান ঘটে।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: