রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশে পৌঁছালো প্রবাসীদের উপহারের ২৫০ ভেন্টিলেটর জয় দিয়ে সফর শেষ করতে চায় টাইগাররা জাপান ৩০ লাখ ডোজেরও বেশি অ্যাস্ট্রাজেনিকা টিকা পাঠাবে : মোমেন ২১ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে সংক্রমণে ফের শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, মৃত্যুতে ইন্দোনেশিয়া দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ১৯৫, শনাক্ত ৬৭৮০ গোপালগঞ্জে লকডাউন কার্যকর করতে জেলা তথ্য অফিসের পথপ্রচার অব্যাহত গোপালগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত ৫ টি দোকানকে জরিমানা করেছে আইসিইউ না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে করোনা রোগীদের দেশে পৌঁছালো জাপানের উপহারের আড়াই লাখ টিকা অনিশ্চয়তায় প্রতিটি দিন কাটায় জাহানারা বেগম ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ ১০৪ জন হাসপাতালে চিরনিদ্রায় শায়িত ফকির আলমগীর হানা দিতে পারে করোনা’র নতুন ভ্যারিয়েন্ট যেসব শর্তে খোলা থাকবে বীমা অফিস রবিবার থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু শোক মাসের কর্মসূচি সীমিত পরিসরে পালনের সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগের ঈদে ৯০ লাখ ৯৩ হাজার গবাদিপশু কোরবানি করোনা’র সংক্রমণ বাড়লে অবস্থা ভয়ানক হতে পারে: কাদের শহীদ মিনারে ফকির আলমগীরকে শেষ শ্রদ্ধা

আদালতে ভার্চুয়াল শুনানিতে ৬৯,৬৫৫ আসামির জামিন

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন
আদালতে ভার্চুয়াল শুনানিতে ৬৯,৬৫৫ আসামির জামিন

সারাদেশে ৪৬ কার্য দিবসে অধঃস্তন আদালত হতে ভার্চুয়াল শুনানিতে ৬৯ হাজার ৬৫৫ জন আসামি জামিন পেয়ে কারামুক্ত হয়েছেন।
সুপ্রিমকোর্টের মুখপাত্র ও বিশেষ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুর রহমান বাসস’কে আজ এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, গত ১২ এপ্রিল হতে গত ১৭ জুন বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট ৪৬ কার্য দিবসে সারাদেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৩৩০টি মামলায় জামিনের দরখাস্ত ভার্চুয়াল শুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছে এবং মোট ৬৯ হাজার ৬৫৫ জন হাজতী ব্যক্তি জামিনে কারামুক্তি পেয়েছেন। এর মধ্যে এই ৪৬ কার্য দিবসে ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে মোট জামিন প্রাপ্ত শিশুর সংখ্যা ১১৬০ জন।
সুপ্রিমকোর্ট মুখপাত্র আরো জানান, গত ১৭ জুন সারাদেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে ২ হাজার ৬৯৪ ফৌজদারি মামলায় ভার্চুয়াল শুনানিতে জামিন-দরখাস্ত নিষ্পত্তি হয়েছে এবং ১ হাজার ৩৭২ জন হাজতী অভিযুক্ত ব্যক্তি জামিন প্রাপ্ত হয়ে কারাগার হতে মুক্তি পেয়েছেন।
মহামারি করোনাভাইরাস জনিত সংক্রমণ এড়াতে এবং উদ্ভূত পরিস্থিতিতে শারিরীক উপস্থিতি ব্যতিরেকে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু হয়। এ জন্য তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার আইন-২০২০ প্রণয়ন করে সরকার এবং সুপ্রিমকোর্ট প্র্যাকটিশ ডাইরেকশন জারি করে। সে আলোকে ২০২০ সালের মে মাসে প্রথম দফায় অধঃস্তন আদালতে ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম শুরু হয়। পরে করোনা সংক্রমণের হার কিছুটা কমলে স্বাভাবিক বিচার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু হয়। চলতি বছরের মার্চ মাসে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় ফের ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে বিচার কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর থেকে দ্বিতীয় দফায় টানা ৪৬ কার্য দিবস ভার্চুয়ালি বিচার কার্যক্রম চলছে। এটি পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত চলবে বলে জানায় সুপ্রিমকোর্ট প্রশাসন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্যান্য সংবাদ