শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অসুস্থ গাফফার চৌধুরীকে ফোন করে খোঁজ-খবর নিলেন রাষ্ট্রপতি স্কটল্যান্ড হারলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ কক্ষপথে স্যাটেলাইট স্থাপনে ব্যর্থ হয়েছে দ. কোরিয়া স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা এ মাসেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী বন্ধ হচ্ছে না বৈধ-অবৈধ মোবাইল ফোন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ২১৩ অভিবাসী আটক হিন্দুদের ওপর হামলা দেশের চেতনার বেদীমূলে হামলা : তথ্যমন্ত্রী জানুয়ারিতে বাড়তে পারে ক্লাসের সংখ্যা: শিক্ষামন্ত্রী ব্যাট-বলের ভারসাম্যে খুশী মাহমুদুল্লাহ ধামইরহাটে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে পুনরায় দেলদার হোসেন সভাপতি ও সম্পাদক শহীদুল ইসলাম বিশাল জয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্বে টাইগাররা ‘বিএনপি নেতারা রাজনীতি নয়, অফিসিয়াল দায়িত্ব পালন করছেন’ গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন মালিঙ্গাকে ছাড়িয়ে আফ্রিদিকে ধরে ফেললেন সাকিব রাডার কিনতে ফ্রান্সের সঙ্গে চুক্তি সই করোনায় ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত ঠাকুরগাঁওয়ে বাল্যবিবাহের অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান ও কাজি সহ আটক ০৯ কখনও বলিনি বিশ্বকাপ জিতে বিয়ে করব: রশিদ খান নারী ও শিশু উন্নয়ন বিষয়ক সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপন ধামইরহাটে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ মন্ডলকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

অভিনেতা ড. ইনামুল হক মারা গেছেন

রিপোর্টারের নাম
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
অভিনেতা ড. ইনামুল হক মারা গেছেন

প্রখ্যাত অভিনেতা ড. ইনামুল হক মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। সোমবার (১১ অক্টোবর) বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আহসান হাবিব বলেন, বাসায়ই ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করেই পালস পাওয়া যাচ্ছিল না। এ পরিস্থিতিতে দ্রুত শান্তিনগর ইসলামী ব‌্যাংক হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন তাকে। আনুমানিক বেলা ৩টার দিকে মারা গেছেন তিনি।

ড. ইনামুল হক ১৯৪৩ সালের ২৯ মে ফেনী সদর উপজেলার মোটবী ইউনিয়নে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম ওবায়দুল হক ও মা রাজিয়া খাতুন। এ অভিনেতার সহধর্মিণী বরেণ্য নাট্যজন লাকী ইনাম। তারকা দম্পতির সংসারে দুই মেয়ে, হৃদি হক (স্বামী লিটু আনাম) আর প্রৈতি হক (স্বামী সাজু খাদেম)।

ড. ইনামুল হক দীর্ঘদিন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) রসায়ন বিভাগের শিক্ষকতার দায়িত্ব পালন করেছেন।

এ নাট্যকার শিক্ষাজীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। এরপর যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন এবং ১৯৬৫ সালে বুয়েটে যোগ দেন। তারপর ১৯৭০, ১৯৭৯, এবং ১৯৮৭ সালে যথাক্রমে সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক এবং অধ্যাপক পদে উন্নীত হন প্রখ্যাত এ অভিনেতা।

তিনি ১৯৬৯ সালে গণঅভ্যুত্থানে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে আন্দোলনমুখী নাটকে অংশ নেন। এরপর নাট্যচর্চাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে ১৯৭০ সালে তৎকালীন অসহযোগ আন্দোলনে অংশ নেন। এছাড়া দেশ স্বাধীনের সময় ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ সৃজনীর ব্যানারে পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে ট্রাকযোগে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় পথনাটক করেন।

প্রখ্যাত এ নাট্যকারের ইতোমধ্যে ১৮টি নাটক বিভিন্ন নাট্যপত্র, বিশেষ ম্যাগাজিন এবং বই আকারে প্রকাশ হয়েছে। তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে নির্জন সৈকতে, গৃহবাসী, মুক্তিযুদ্ধ নাটকসমগ্র, স্ট্রিন্ডবার্গ এর দু’টো নাটক, মহাকালের ঘোর সওয়ার, বাংলা আমার বাংলা ইত্যাদি

ড. ইনামুল হক নাটকে অবদানের জন্য ২০১২ ‘একুশে পদক’, একই বছর টেলিভিশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ পুরস্কার আজীবন সম্মাননা এবং ২০১৭ সালে ‘স্বাধীনতা পুরস্কার’ লাভ করেন।


অন্যান্য সংবাদ
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: